সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁওঃ

কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউছুফেরখীল গ্রামের শত বছরের পুরনো “আইল্ল্যার মা’র কুয়া” (পানি পানের কুপ) বিলুপ্ত।
এক সময়ের পানি পানের ভরসা এ কুয়া এখন কালের বিবর্তনে হারিয়ে গেছে।
সরজমিন সোমবার দুপুরে গিয়ে দেখা গেছে, ইতিহাস ঐতিহ্য এ কুয়া এখন পরিত্যাক্ত অবস্থায় রয়েছে।
করা হয়েছে কলমি শাক ক্ষেত, নেই পানিও।
ইউনিয়নের ইউছুফেরখীল গ্রামের ভিতরে কালের একমাত্র স্বাক্ষী আইল্ল্যার মা’র কুয়া।
স্থানীয়রা জানায়, এক সময় আইল্ল্যার মা’র কুয়াই ছিল পানির ভরসা।
গরীবেরা তো বটেই সম্ভ্রান্ত পরিবারের মধ্যেও এ কুয়ার পানি ব্যবহার করা হতো।
এরকম কুয়া আর ছিল না। ইউছুফেরখীল গ্রামের ভিতর আইল্ল্যার মার কুয়ায় একটি মাত্র কুপ ছিল।
সেই কুয়া থেকে পাড়ার সকলে পানি সংগ্রহ করে তা ব্যবহার করত। এতে করে পাড়া মহল্লার গৃহিনীদের একে অপরের সাথে দেখা হওয়ারও একটা সুযোগ ছিল।
আর এখন ঘরে ঘরে টিউবওয়েল ও বিদ্যুত চালিত মটর ব্যবহারে পানি সংগ্রহ করছে। বিভিন্ন উপায়ে এখন পানি সহজ লভ্য হওয়ায় অনেক আগেই কুয়ার ব্যবহার প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। যার কারনে “আইল্ল্যার মা’র কুয়া”এখন বিলুপ্ত।
আইল্ল্যার মা’র কুয়া নিয়ে আমারও অনেক স্মৃতি রয়েছে। ছোট বেলায় নানার বাড়ি(মরহুম ছৈয়দ আহমদ খলিফা) গেলে এ কুয়ায় গোসল করতাম লম্পঝম্প করে। শীত কালে এ কুয়ায় নামা যেত না জোক (চিনা জোক) এর ডরে।
কুয়ার পাড়ে বসে বদনা দিয়ে অনেকে সেরে নিতেন নিত্য দিনের স্নান। এসব আজ স্মৃতি কিংবা কল্পকাহিনীও বটে!

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •