হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :

চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ মহিলা কলেজ হোস্টেলের নিজ কক্ষে রোববার (১৬ জুন) রাতে ঘুমে থেকে চিরঘুমে চলে গেছেন তরুণী রামিসা মালিয়াত (১৭)।

রামিসা মালিয়াতের জন্ম কক্সবাজারের রম্যভূমি রামুর শ্রীকুল গ্রামে এবং বাবার নাম প্রফেসর মোহাম্মদ ইকবাল সিকদার। দাদার নাম প্রয়াত বিশিষ্ট জমিদার ফররুখ আহমদ সিকদার। তাঁদের নিজ বাড়ি রামু উপজেলার গর্জনিয়ার বোমাংখিল গ্রামে। বড় সন্তানকে হারিয়ে বাবা ও স্বজনেরা নিশ্চল নিথর হয়ে পড়েছেন শোকে। রামিসার এই অকাল প্রস্থানে কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

অত্যন্ত মেধাবী ছাত্রী রামিসা প্রাথমিকের পাশাপাশি অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট এবং এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ মহিলা কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন অনেক স্বপ্ন নিয়ে। পড়ছিলেন দ্বাদশ শ্রেণিতে। কিন্তু তার সেই স্বপ্নগুলো আর পূরণ হলো না।

রামিসার জানাজা সোমবার (১৭ জুন) গর্জনিয়া ইউনিয়নের বোমাংখিল গ্রামের সিকদার পাড়া আমির আলি চৌধুরী জামে মসজিদ সংলগ্ন মাঠে বাদে এশা অনুষ্ঠিত হয় ও জানাজার পরে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। নামাজে ইমামতি করেন মরহুমার আত্মীয় হাফেজ মাওলানা আবু বক্কর।

জানাজায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তোফাইল আহমেদ, চট্টগ্রামের লোহাগাড়া মোস্তাফিজুর রহমান কলেজের একাধিক প্রফেসর, জোয়ারিয়ানালা এইচ এম সাঁচি উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুল হক সিকদারের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনীতিক, শিক্ষক, সাংবাদিক, মাওলানাসহ সর্বস্থরের মানুষ অংশ নেন।

রামিসা মালিয়াতের জন্য- তাঁর তিন চাচা গর্জনিয়ার সমাজ সেবক ইস্কান্দর মির্জা, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ইমদাদুল হক সিকদার ও ইয়াসির আরাফাত লাবলু পরিবার ও কমিউনিটির পক্ষে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •