একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (৫ম পর্ব)

– অধ্যাপক আকতার চৌধুরী

(৫ম-পর্ব)

ইহরামের কাপড় পড়া অবস্থায় যখন পবিত্র মক্কার মিছফালায় মাটিতে পা রাখি তখন সৌদি সময় প্রায় সকাল ৬টা । যে জায়গায় আমাদের গাড়ি দাড়ায় তা একটা ফ্লাই ওভারের নিচে। নেমে মোবাইলের দিকে চোখ পড়তেই বুকটা ধড়ফড় করে উঠল। মাত্র ১০% ব্যাটারীর চার্জ বাকি । এর মধ্যেই সারতে হবে আত্মীয় স্বজনদের সাথে কল। জানাতে হবে আমাদের অবস্থান। বন্ধ হলেই আমাদের খোঁজে পেতে তাদের অসুবিধা হবে। মনে মনে আল্লাহ আল্লাহ করছি , যাতে ভাতিজা আবু তাহের অথবা ছোট ভাই টিটু কল দেয় চার্জ থাকতেই । তারা যে জায়গায় আমাদের অপেক্ষায় , সে জায়গায় ড্রাইভার গাড়ি পার্কিং করতে পারে নাই । অনেক সময় বড় বাস হলে মিছফালায় হোটেল পর্যন্ত গাড়ি যেতে দেয় না। ভাগ্যক্রমে আমাদের মিনিবাসটা ট্রাফিক আটকায় নাই । ফলে আরো বেশী হোটেলের কাছাকাছি চলে যাই । চার্জ থাকা পর্যন্ত শেষ কলটা আসে টিটুর। তাকে আমাদের গাড়ির অবস্থানটা জানানোর পর মোবাইলটা অফ হয়ে যায় । আমি কিছুটা নার্ভাস । সহযাত্রি নাসির ভাইয়ের মোবাইল তখনও সচল। ওনার মোবাইল থেকে অনেক্ষণ কথা বলার পর আমাদের বাস খোঁজে পায় তারা । তাই বলব , যারা সফরে আসবেন মোবাইলে ব্যাকঅ্যাপ রাখতে চাইলে অন্তত বিমানে অবস্থানকালীন মোবাইল সুইচ অফ করে রাখা ভাল। যেহেতু বিমান আকাশে উড্ডয়ন অবস্থায় মোবাইল নেটওয়ার্ক পায় না , তাই নেটওয়ার্ক খুজতে গিয়ে অযথা ব্যাটারীর চার্জ নস্ট হয়।

আত্মীয় স্বজনকে কাছে পেয়ে আমাদের এক প্রকার স্বস্তি ফিরে আসে। তবে যাত্রার ক্লান্তি পেয়ে বসে। আমরা বাসায় যেতে চাইলে তাহের বলে, ইহরামের কাপড় পড়ে বাসায় যাওয়া ভাল হবে না । আগে তওয়াব আর সাফা মারওয়া শেষ করতে হবে। তারাও তৈরী হয়ে এসেছে আমাদের সঙ্গ দেয়ার জন্য ইহরামের কাপড় পড়ে। মক্কা থেকে যারা ওমরাহতে অংশ নেন তাদের অনেকেই হযরত আয়েশা (র:) মসজিদ থেকে ইহরাম পড়া শুরু করেন। এ মসজিদটি হারাম শরীফ থেকে ৬কি:মি দুরে মদীনা যাওয়ার পথে। জানা যায়, হযরত মোহাম্মদ (স:) একবার তাঁর সহধর্মীনি বিবি আয়েশা (রা:)কে এই মসজিদে পাঠিয়েছিলেন ওমরাহ’র ইহরাম বাঁধার জন্য। সে কারণে এটাকে অনেকে ইহরাম পড়ার মসজিদ হিসেবে ব্যবহার করেন। আমিও ৩য় ওমরাহ শুরু করার জন্য এ মসজিদ থেকে ইহরাম ও দুই রাকাত নামাজ পড়েছিলাম।

আমরা মিছফালায় যেখানে নেমেছি সেখান থেকে পায়ে হেটে হারাম শরীফের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিলাম। অনেক দুর হাটা পথ । পায়ে যদিওবা নতুন দুই ফিতার স্পঞ্জের চ্যান্ডেল কিন্তু হেটে আরাম পাচ্ছিলাম না । ইহরামের কাপড় পড়ার পর কিছু বিধি নিষেধ খুব কঠিনভাবে মেনে চলতে হয় । এর মধ্যে সেলাই বিহীন কাপড় ও সেলাই বিহীন সেন্ডেল অন্যতম। আমার কাছে মনে হয়েছে একদম নতুন স্যা ল্ডেল পড়ার চেয়ে কিছুদিন ব্যবহৃত স্যান্ডেল পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে পায়ে দেয়া ভাল। এতে হাটাচলা সহজ হবে। ওমরাহ বা হজে¦র সময় জুতা পড়ার কোন সুযোগ নেই বললেই চলে। তাই ২ জোড়া পূর্বে ব্যবহৃত স্যান্ডেল সফরে নিতে চেষ্টা করবেন।
তবে আমার পায়ে আজ কিসের শক্তি ! আমি একটা প্রচন্ড টান অনুভব করছি। আমার থেকে মাত্র এক দৃষ্টি দূরে আমার আল্লাহর ঘর। আমার পায়ে কোন ব্যথা আর দীর্ঘ পথ পাড়ি দেয়ার ক্লান্তি কোনটাই অনুভূত হচ্ছে না ! চুম্বকের টানের চেয়েও গতিময় মনের টানে আমি ছুটে চলেছি । লাব্বাইকা আল্লাহুমা লাব্বাইক – প্রভু আমি হাজির । প্রভু-তুমি আমার হাজিরাটা গ্রহণ কর।

চার কোণা বিশিষ্ট কাল গিলাপে জড়ানো একটি ঘর ।কাবা শরীফের গিলাফ একটি বস্ত্রখণ্ড যা দ্বারা কাবাকে আচ্ছাদিত করে রাখা হয়। বর্তমানে গিলাফ কালো রেশমী কাপড় নির্মিত, যার ওপর স্বর্ণ দিয়ে লেখা থাকে “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুলাল্লাহ”, “আল্লাহু জাল্লে জালালুহু”, “সুবহানাল্লাহু ওয়া বেহামদিহি, সুবহানাল্লাহিল আযিম” এবং “ইয়া হান্নান, ইয়া মান্নান”। ১৪ মিটার দীর্ঘ এবং ৯৫ সেমি প্রস্থবিশিষ্ট ৪১ খণ্ড বস্ত্রখণ্ড জোড়া দিয়ে গিলাফ তৈরি করা হয়। চার কোণায় সুরা ইখলাস স্বর্ণসূত্রে বৃত্তাকারে উৎকীর্ণ করা হয়।(সুত্র: উইকিপিডিয়া)

এটা কী শুধূই ঘর ! যে ঘর বা ক্বা’বা সর্বপ্রথম আল্লাহ তালার নির্দেশে নির্মাণ করেছেন ফিরিশতারা । পরে হযরত আদম (আ:) , এর পরে হযরত শীষ (আ:)। এর পরে হযরত নূহ (আ:)। তারওপরে  হযরত ইবরাহীম (আ:)।

হাজার হাজার বছর এখনো আল্লাহর একত্ববাদের মাহাত্ম্য প্রচার করে আসছে। আমি বলব, না এটা শুধূই ঘর নয় । এটা আমার কাছে মহান সৃষ্টি কর্তার অস্তিত্বের একটা উজ্জল সাক্ষর । যার আকর্ষণে মানুষ পতঙ্গের মত উড়ে উড়ে আসে । যার আলোতে পুড়ে নিজেকে পরিশুদ্ধ করে।
আমি আল্লাহর ঘরের দরজায় ডান পা এগিয়ে দিয়ে প্রাণভরে দেখছিলাম চতুষ্কোণাকৃতির হযরত ইব্রাহিম (আ:) এর নির্মিত সেই ঘর । তারপর বৃত্তাকারে নির্মিত তাওয়াবের চারিদিক দেখে নিলাম। বায়তুল্লাহ শরীফকে সামনে ও মকামে ইব্রাহিমকে মাঝে রেখে খালি জায়গা দেখে ২ রাকাত নামাজ পড়ে নিলাম। অনুমতি চাইলাম আমি পাপী বান্দা, সকল পাপ আজ পুড়িয়ে নিজেকে পরিশুদ্ধ করব। সবুজ সংকেত থেকে শুরু । ডান কাঁধ খালি রেখে চাদরের মাঝের অংশ বগলের নীচ দিয়ে এনে চাদরের পার্শ্ব বাম কাঁধের উপর ফেলে দিলাম।

অন্তরে নিয়ত করলাম- আল্লাহ । আমি তোমার পবিত্র ঘরের তাওয়াফ করার নিয়ত করেছি। আমার জন্য তা সহজ করে দাও এবং কবুল কর। সাতটি চক্কর যা একমাত্র তোমার সন্তুষ্টির জন্য। তুমি সর্বেসর্বা । তুমি পরাক্রমশালী । তুমি মহান। তুমি ক্ষমাশীল। তুমি ছাড়া এ পাপীর পাপ ক্ষমা করার আর কোন মালিক নাই।

সামনে ‘হাজরে আসওয়াদ’ বা কালো পাথর। এর দিকে তাকিয়ে ‘ ‘বিসমিল্লাহি আল্লাহু আকবর, ওয়ালিল্লাহিল হামদ্।’ ’ বলে তিনবার হাত ‘হাজরে আসওয়াদ’ বা কালো পাথরের দিকে করে নিজ হাতে চুমো খাচ্ছি। হাজীদের ভীড়ে কাছে যাওয়ার মত সুযোগ ছিল না । আর বিশাল ভীড় টেলে গায়ের জোরে স্পর্শ ও চুমো করতে যাওয়াটাও অনুচিত। এখানে নারী পুরুষ , সাদা কালো. ধনী গরীবের ভেদাভেদ নাই । সবাই পাগলপারা ,নিজের কৃতকর্মের মুক্তির জন্য । মনে রাখতে হবে , এ পাথর আমাদের কোন লাভ ও করতে পারে না , ক্ষতি
ও করতে পারে না । শুধূ মাত্র মহানবীকে (স:) এ পাথরকে চুমো খেয়েছেন বলে আমরা সেটাই অনুসরণ করছি। এই তাওয়াফকে নিয়ে নানা মুনির নানা মত, নানা পথ। কিন্তু আমার পথ একটাই । আল্লাহর সন্তষ্টি ।

এই সাত চক্করে দুনিয়ার সকল প্রকার কানেকটিভিটি থেকে মানুষ আলগা হয়ে যায় । তখন একটি মাত্র কানেকটিভিটি চালু থাকে, যা সরাসরি আল্লাহর সাথে। বার বার মনে পড়ে এটা শুধূ ইহরাম নয় , কাফনের কাপড়ও ! আমি জিন্দা বটে , তবে জিন্দা লাশ!

চলবে…

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (১ম পর্ব)

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (২য় পর্ব)

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (৩য় পর্ব)

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (৪র্থ পর্ব)

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (৬ষ্ঠ পর্ব)

সর্বশেষ সংবাদ

দাবী মানলেই মিয়ানমারে ফিরবে রোহিঙ্গারা

বেপরোয়া মটর সাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেলো ব্যবসায়ীর

আমার ভাই হলেও ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ছাড় দেবেন না- এড. সিরাজুল মোস্তফা

ইয়াবা ভাগবাটোয়ারার সময় ৫ পুলিশ গ্রেফতার

ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইলেন রাব্বানী

সিনেট থেকে পদত্যাগ চেয়ে শোভনের আবেদন

নাইক্ষ্যংছড়ি বাইশারীতে ১০ টাকা মূল্যে চাউল বিক্রির কার্যক্রম শুরু

সমুদ্রে মাছ শিকার করছে নিবন্ধনহীন ২৭ হাজার নৌযান, বিপুল পরিমান রাজস্ব ফাঁকি

চট্টগ্রামে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে রুপালী ইলিশ

‘পুলিশের কেউ মাদকের সাথে জড়ালে সাদা পোশাকে বাড়ি পাঠানো হবে’

শেষ হলো ‘রাজামিয়ার’ রাজাগিরি

প্রি-প্যারেটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও জেলা গ্রন্থাগারের লাব্রেরিয়ানের ভুল বুঝাবুঝির অবসান

৪৯ বছর পর বিদ্যুত গেল বাইশারীতে

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ১

কক্সবাজারে আভ্যন্তরীণ গনতন্ত্র চর্চা বিষয়ক কর্মশালা সম্পন্ন

মহেশখালীতে চৌকিদার প্যারেড ও আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা শুরু

খুটাখালীতে স্কুল ছাত্র নিখোঁজ

কক্সবাজারে দুই যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

আধুনিক অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক

সিরিয়ায় গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২