খুরুষ্কুলে চাঁদা না দেয়ায় সন্ত্রাসী হামলা ও বাউন্ডারী ওয়াল ভাংচুর

সংবাদদাতাঃ
কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে জমির মালিকানা ভোগ দখল করতে চিহ্নিত দুর্বৃত্তদের দাবীকৃত চাঁদা না দেয়ায় সশস্ত্র হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে মোহাম্মদ রাশেদুল আলম (৪৩) নামের এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি কক্সবাজার পৌরসভার গোলদিঘির পূর্বপাড়া এলাকার বদিউল আলমের ছেলে।
শনিবার (১৫ জুন) বিকেলে খুরুশকুলের কুলিয়াপাড়ায় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কেউ আটক হয়নি। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছে, কুলিয়াপাড়াস্থ শ্মশানের দক্ষিন পার্শ্বের মোহাম্মদ রাশেদুল আলমের স্বত্ত্ব দখলিয় জমিতে বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণকালীন ১০/১২ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ আক্রমণ করে।
এতে জমির মালিক রাশেদুল ইসলাম গুরুতর জখম হন। মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কক্সবাজারে সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

দুই সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ ও ভাংচুরকৃত ওয়াল

ভিকটিম রাশেদুল ইসলাম জানিয়েছেন, তার জমি দখল স্বত্ব ভোগ করতে হলে স্থানীয় মোহাম্মদ ছৈয়দের বড় পুত্র মোঃ বেলাল ২ লক্ষ টাকা ও মৃত আবু তাহেরের পুত্র রাশেদুল ইসলাম ৩ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। বিভিন্ন সময় তারা মোবাইলে ফোন করে হুমকি দেয়। তাদের দাবীকৃত চাঁদা না দিলে জানে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে। এমনকি তার মালিকানাধীন জমি অবৈধ দখল করবে বলে জানায়।
জমির মালিক বিভিন্ন সময়ে তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেও তেমন সুরক্ষা পায়নি। বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে টাকা না দেয়ায় মৃত আবু তাহেরের পুত্র মনজুর মোর্শেদ (২৭), আবু সুফিয়ান পুওত্যা (২৮), মোঃ রাশেদ (৩৫), শামশু (৪২), মোঃ ছৈয়দের পুত্র মোঃ বেলাল (৩৮) ও আনিসুর রহমান ধইল্যাসহ আরো ১০/১২ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী হামলে পড়ে। নির্মাণাধীন ৬০ ফুট বাউন্ডারি ওয়াল ভাংচুর করতে থাকে। জমির মালিক অধ্যাপক ফিরোজ শাহ বাঁধা প্রদান করলে চরমভাবে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসী মনজুরের হতে থাকা ধারালো দা দিয়ে মাথায় সজোরে কোপ মারে। এতে তিনি রক্তাক্ত গুরুতর জখম হন।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, চিহ্নিত সন্ত্রাসী পুওত্যার হতে থাকা কিরিচ দ্বারা এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকে। বাকী লোকজন পকেটে থাকা নগদ ৮০ হাজার টাকা ও অপো এস ৫ মোবাইল সেটটি জোরপূর্বক ছিনিয়া নেয়। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা মটর সাইকেলযোগে পালিয়ে যায়। ঘটনার দিন রাতেই কক্সবাজার সদর মডেল থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, কুলিয়াপাড়ার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা দীর্ঘদিন ধরে নানা অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। তাদের কাছে পুরো এলাকাবাসী জিম্মি। পরের জমি দখল, অপহরণ, ছিনতাইসহ নানা অপকর্মের সিন্ডিকেটকে ধরার এখনই উপযুক্ত সময়।

সর্বশেষ সংবাদ

এ্যাম্বুলেন্সে করে ইয়াবা পাচার, লোহাগাড়ায় গ্রেপ্তার ৪

চীনের রাষ্ট্রদূত ঝিমিং এর নেতৃত্বে ৮ সদস্যের তুমব্রু সীমান্ত পরিদর্শন

সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় ১৬ রোহিঙ্গা আটক

প্রবারণা পূর্ণিমায় কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়ায় দিপংকর বড়ুয়া পিন্টুর কৃতজ্ঞতা

কক্সবাজার শহরের প্রধান সড়কের ৮০ শতাংশই খানাখন্দ

মাসে বন্ধ ৪৬ গার্মেন্টস, বেকার হয়েছে সাড়ে ২৫ হাজার শ্রমিক

চকরিয়ায় দেয়াল চাপা পড়ে আহত হওয়া যুবকের মৃত্যু

৮৭টি ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে মীরাক্কেলের ‘মীর’র আত্মহত্যার চেষ্টা!

ফিলিস্তিন রক্ষায় কাবা শরিফের ইমাম সুদাইসির ঐক্যের ডাক

নিলামে কেনা বাইক রেজিস্ট্রেশন করবেন যেভাবে

একসঙ্গে আট বাচ্চা প্রসব ছাগলের

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে

কে এই লেখক ভট্টাচার্য

কে এই জয়

অতিরিক্ত জিমে বাবা হওয়ার ক্ষমতা হারাচ্ছে পুরুষরা

ঈদগাঁওতে গাড়ীর ধাক্কায় কলেজ শিক্ষার্থী আহত

মার্কিন ডেলিগেট কক্সবাজার পৌঁছেছেন

লামায় ডেইরি এসোসিয়েশন’র কমিটি গঠন

টেকনাফে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এক সন্দিগ্ধ বিদেশিকে হন্য হয়ে খোঁজা হচ্ছে