মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার শহরের ব্যস্ততম গুরুত্বপূর্ণ বানিজ্যিক এলাকা পানবাজার সড়ক দীর্ঘ প্রায় একবছর পর খুলে দেয়া হয়েছে। বুধবার ১২ জুন বিকেল সাড়ে ৩ টার এই রোডে দেয়া ব্যারিকেড তুলে ফেলে রাস্তাটি যান চলাচলের জন্য উম্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। পুরাতন পানবাজার রোডটি খুলে দেয়ার নেপথ্যে রয়েছে অনেক ঘটনাবলী। গত মঙ্গলবার ১১ জুন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে তাঁর কার্যালয়ের শহীদ এ.টি.এম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট আ.জ.ম মঈন উদ্দিন পুরাতন পানবাজার সড়কটিতে বসানো ব্যারিকেড তুলে দিয়ে সড়কটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার ব্যাপারে আগের সভার সিদ্ধান্ত কার্যকর না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন-সিদ্ধান্ত যদি কার্যকর না হয় তাহলে, সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে লাভ কি। এরপর সভার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বিষয়টি দেখার জন্য সভায় উপস্থিত ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ ইকবাল হোসাইনকে দায়িত্ব দেন। ভারপ্রাপ্ত এসপি মুহাম্মদ ইকবাল হোসাইন জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ সুপার বাবুল চন্দ্র বণিককে দায়িত্ব দেন।আবার অন্যদিকে, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও পুরাতন পানবাজার রোডের অভিজাত শপিং মল ‘হাশেম টাওয়ার’-এর সত্বাধিকারী সিনিয়র এডভোকেট আ.জ.ম মঈন উদ্দিন শহরের পুরাতন পানবাজার সড়কটির ব্যারিকেড তুলে ফেলে সড়কটি উন্মুক্ত করে দেয়ার আবেদন জানিয়ে নিজে বাদী হয়ে হাইকোর্টে বিচারপতি শেখ হাসান আরীফের অবকাশকালীন আদালতে একটি রীট পিটিশন করেন। যার রীট পিটিশন নম্বর ৬২৯/২০১৯ ইংরাজি। মামলাটি শুনানীর জন্য বুধবার ১২ জুন একই বেন্ঞ্চে কার্যতালিকার ৫২ নম্বর ক্রমিকে ছিল। রীট পিটিশনটি যথারীতি শুনানীকালে বিচারপতি শেখ হাসান আরীফ রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলী ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এডভোকেট ইসরাত জাহান শান্ত এর কাছ থেকে কক্সবাজার শহরের পুরাতন পানবাজার সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ কিনা-তা জানতে চান। তখন সড়কটির বাস্তব অবস্থা জানার জন্য ডিএজি ইসরাত জাহান শান্ত আদালতের কাছে একদিন সময় চান। আদালত সময় মন্ঞ্জুর করে একদিন পর অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন রীটের বিষয়টি আদেশের জন্য রাখেন। বুধবার সকালে হাইকোর্টে এ শুনানী শেষে ডিএজি ইসরাত জাহান শান্ত এটর্নি জেনারেলের অফিসের মাধ্যমে কক্সবাজারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে রোডটির বাস্তব অবস্থা জানতে চাইলে তখন কক্সবাজারের সংশ্লিষ্ট সকলের এ বিষয়ে টনক নড়ে। ফলে তাড়াহুড়ো করে বিগত সালের আগষ্ট মাস থেকে ব্যারিকেড দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া শহরের গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক এলাকা পুরাতন পানবাজার সড়কের ব্যারিকেড বুধবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে উঠিয়ে দিয়ে সড়কটি যান চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। একেই বলে ‘হাইকর্টের ঠেলা’। রীট পিটিশনটি বাদীর পক্ষে শুনানী করেন সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট আলী আজম ও এডভোকেট জসিম উদ্দিন। বিষয়টি রীট পিটিশনের বাদী এডভোকেট আ.জ.ম মঈন উদ্দিন সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া কক্সবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ ও একই এলাকার কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান চৌধুুরীও রোডটির ব্যারিকেড তুলে ফেলার জন্য বিভিন্নভাবে তদবির করেছিলেন বলে পুরাতন পানবাজার রোডের ব্যবসায়ীরা সিবিএন-কে জানিয়েছেন। সড়কটি উন্মুক্ত করে দেয়ার মাধ্যমে পুরাতন পানবাজার রোডের ব্যবসায়ী, বাসিন্দা সহ এ এলাকার সকলের দীর্ঘদিনের দুর্দশার অবসান হলো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •