জাকির নায়েককে ভারত প্রত্যর্পণ করতে চান না মাহাথির

বিদেশ ডেস্ক:

বিতর্কিত ইসলামি বক্তা জাকির নায়েককে ভারতে প্রত্যর্পণ না করা অধিকার রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশীয় প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তিনি বলেন, জাকির মনে করেন ভারতে তিনি ন্যায়বিচার পাবেন না। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে তরুণদের সন্ত্রাসবাদে উসকানি, ঘৃণাবাদী বক্তব্য ও সাম্প্রদায়িক উস্কানির অভিযোগ এনেছে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ)। ২০১৬ সালে ঢাকায় গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলাকারীরা জাকির নায়েকের বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়েছিল বলে তথ্য পাওয়ার দাবি করে এনআইএ’র তদন্তকারীরা। হামলাকারী তরুণদের ঘৃণাবাদী বক্তব্যের মাধ্যমে অনুপ্রাণিত করার অভিযোগেরও তদন্ত চলছে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। দুই বছর আগে ভারত ছেড়ে যাওয়া জাকির এখন সৌদি আরব ও মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন। বিগত নাজিব রাজাকের নেতৃত্বাধীন মালয়েশিয়ার সরকার জাকির নায়েককে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেয়। গত বছর তাকে ফেরত পাঠানোর অনুরোধ জানায় ভারত। মালয়েশিয়ার সঙ্গে ভারতের বন্দিবিনিময় চুক্তি থাকলেও গত বছরের জুলাইয়ে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছিলেন, জাকির নায়েকের মামলায় সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সব বিষয় খতিয়ে দেখা হবে।

মাহাথির বলেন, আমরা অস্ট্রেলিয়াকে অনুরোধ করেছিলাম যে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পুলিশ কমান্ডো সিরুল আজহার উমারকে যেন তারা ফিরিয়ে দেয়। কিন্তু তারা দিচ্ছে না। জাকির নায়েকের ব্যাপারটিও তেমন। ভারত ইন্টারপোলের সহায়তায় জাকির নায়েককে দেশে ফিরিয়ে আনতে পারে এমন সম্ভাবনার ব্যাপারে মাহাথির বলেন, জাকির ভারতে নিরাপদ বোধ করছেন না।

মুম্বাইয়ের এই ইসলামি চিন্তাবিদের বিরুদ্ধে হাওয়ালায় টাকা লেনদেন ও ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ রয়েছে। গ্রেফতার এড়াতে বর্তমানে তিনি বর্তমানে তিনি মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন। ভারতের একাধিক তদন্ত সংস্থা তাকে দেশে ফেরানোর চেষ্টা করলেও এখনও তা সফল হয়নি। জাকির নায়েককে সম্মানসূচক নাগরিকত্ব দিয়েছে মালয়েশিয়া সরকার।

সর্বশেষ সংবাদ

কীর্তি মানের মৃত্যু নেই…

স্ত্রীর সাথে যৌন মিলনের ছবি ফেসবুকে দিলেন পুলিশ সদস্য

দেখুন আলিম দারের যে আউট নিয়ে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড়

বগুড়া-৬ আসনে বিএনপি প্রার্থী সিরাজ নির্বাচিত

প্রসূতি মায়ের অপ্রয়োজনীয় সিজার বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট

এড. আমজাদের তৃতীয় নামাজে জানাজায় শোকার্ত জনতার ঢল, দাফন সম্পন্ন,

টেকনাফে ৪টি অস্ত্র ও ১০ রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্রপাচারকারী আটক

আইনজীবী সমিতির পুরাতন ভবনের দেয়াল পড়ে এক শ্রমিক নিহত

কক্সবাজারের সাংবাদিকতার যতকথা (পর্ব-অষ্টম)

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ মানবপাচারকারী নিহত

‘জঙ্গিরা নিজেদের স্বার্থে তরুণদের বেহেশতের স্বপ্ন দেখায়’

চট্টগ্রামে পুলিশের স্ত্রী নারী কনস্টেলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মালুমঘাট স্টেডিয়ামে আন্ত:স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদী

তামাক চাষ বন্ধে সরকারকে আহবান জানাচ্ছি

ভাইস চেয়ারম্যান ছুট্টোকে প্যানেল চেয়ারম্যান পদে ১৫ চেয়ারম্যানের সমর্থন

তীব্র ভাঙ্গনের মুখে বাঁকখালী নদী আতংকে হাজারো মানুষ

মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ইয়াবাসহ মহিলা গ্রেপ্তার

উখিয়ায় দামী ব্রান্ডের ভেজাল পণ্য তৈরির কারখানার সন্ধান

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রত্যাশিত জয়

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-১৩