মোঃ ফারুক, পেকুয়াঃ

পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের আবাদীঘোনা এলাকার মোসলেম উদ্দিনের মেয়ে জুলেখা বেগম (২০)।

বিগত ৭মাস অাগে একই এলাকার অামির হোসেনের পুত্র মোঃ ইসমাঈলের সাথে অানুষ্ঠানিকভাবে কাবিননামা অাকদ সম্পাদন হয়। মেয়ের পরিবার যৌতুক দিতে না পারায় অাকদ ও বিয়ের অানুষ্ঠানিকতা শেষ হলেও যেতে পারেনি স্বামীর বাড়িতে।

এদিকে স্বামী মোঃ ইসমাঈল ও জুলেখা বেগমের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বাড়তে থাকায় শুক্রবার (৭ জুন) ভোরে স্ত্রীকে সাথে নিয়ে পিতার বাড়িতে ওঠেন স্বামী মোঃ ইসমাঈল।

কিন্তু যৌতুক ছাড়াই বউকে ঘরে তুলায় মোঃ ইসমাঈলকে অনেক বকাঝকা করে তার পরিবারের সদস্যরা। এতে রাগে ক্ষোভে বিষপান করে স্ত্রী জুলেখা বেগম।

ইসমাঈল দ্রুত তার স্ত্রীকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে।

কিন্তু স্বামী তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়নি। যার কারণে মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়ে। এঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে স্বামী মোঃ ইসমাঈল ও পিতা অামির হোসেনকে অাটক করেছে পুলিশ।

মেয়ের পিতা মোসলেম উদ্দিন বলেন, প্রায় ৭ মাস অাগে ইসমাঈলের সাথে পারিবারিকভাবে কাবিন ও অাকদ সম্পন্ন করে অামার মেয়ের বিয়ে হয়। ১লাখ ২০ টাকা যৌতুক দেওয়ার কথা ছিল। যখন বিয়ে হয় তখন ৪০ হাজার টাকা দিয়েছিলাম। বাকি টাকা দিতে না পারায় মেয়ে স্বামীর বাড়িতে যেতে পারেনি। এরই মাঝে মেয়ে দেড়মাস অাগে মেয়ে স্বামীর বাড়িতে চলে গেলে মারধর করে অামার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। সর্বশেষ শুক্রবার ভোরে অামরা ক্ষেতের কাজ করতে চলে গেলে স্বামী এসে তাকে নিয়ে যায়। সকাল ৯টায় জানতে পারি অামার মেয়েকে মৃত অবস্থায় অামার বাড়িতে রেখে চলে গেছেন।

এদিকে মাত্র ৪ ঘন্টার ব্যবধানে যৌতুকের বলি হয়ে গৃহবধু জুলেখার মৃত্যু মনে নিতে পারছেনা এলাকাবাসী। তারা এঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছে।

মরদেহ উদ্ধার করা পেকুয়া থানার এসঅাই ইয়াকুবুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, বিষপানে অাত্মহত্যা করা মেয়েটির সাথে মোঃইসমাঈলের কাবিন হয় বিগত প্রায় অাট মাস অাগে। অাকদ হয়েছে কিনা অামি জানিনা। সকালে মেয়েটি স্বামীর বাড়িতে চলে যাওয়ার জন্য বের হয়ে কিছু পথ গিয়ে বিষপানে অাত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি সন্দেহ সৃষ্ঠি হওয়ায় স্বামী ও পিতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অাটক করা হয়েছে।

পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত)মিজানুর রহমান বলেন, জুলেখা বেগম বিষপানে অাত্মহত্যা করার ঘটনায় মামলা হবে। এর অাগে ৩টি অাত্মহত্যার ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •