‘ভালো থেকো ওপারে’ শুভ কামনা, নাকি উপহাস?

এম.এ মাসুদঃ
একটি বাক্য বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খুববেশি চোখে পড়ছে। স্বল্প শিক্ষিত থেকে শুরু করে উচ্চ শিক্ষিত সচেতন মহল এমনকি সাংবাদিকরাও লিখছেন।
কেউ মারা গেলে শোক জানাতে গিয়ে শেষে লিখছেন ‘ভালো থাকুন ওপারে’ অথবা ‘ভালো থেকো ওপারে।’ আত্মসমালোচনা ও আত্মসচেতনতার চিন্তা নিয়ে আমার এ লিখা।
আমরা মুসলিম জাতি হিসেবে ইসলামি মূল্যবোধে বিশ্বাসী। মুসলিম হিসেবে ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে কোন মুসলিম মারা গেলে তার জন্য মাগফিরাতে দোয়া করা অপর মুসলিম ভাইয়ের কর্তব্য। মহান সৃষ্টি কর্তার কাছে মৃত ব্যক্তির কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা ও দোয়া করা যায়। মৃত ব্যক্তিকে জান্নাতবাসী করার জন্য আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ করা যায়।
কিন্তু ইদানিংকালে দেখা যাচ্ছে, কোন মুসলিম মারা গেলে মাগফিরাত কামনা ও দোয়ার পরিবর্তে লিখা হচ্ছে- ‘ভালো থাকুন ওপারে’ অথবা ‘ভালো থেকো ওপারে’।
তাহলে একটু বিশ্লেষণ করা যাক-
কোন মানুষ মারা গেলে সে কোন অবস্থায় আছে অথবা কোন অবস্থায় থাকবে- সেটি একমাত্র আল্লাহ ছাড়া আর কেউ জানেন না। তার কৃতকর্মের প্রতিফল সে কবর থেকে ভোগ করা শুরু করবে।
মৃত ব্যক্তি যদি পৃথিবীতে পূণ্যের কাজ করে অথবা আমলে ছালেহের মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করতে পারে, তাহলে সে হয়তো আল্লাহর দয়ায় জান্নাতবাসী হবে এবং কবরেও আত্মার প্রশান্তি পাবে।
আর যদি কোন মৃত ব্যক্তি পৃথিবীতে লাগামহীন জীবন-যাপন করে আল্লাহর না ফরমানি ও পাপের বোঝা মাথায় নিয়ে মৃত্যুবরণ করে কুরআন-হাদিস অনুযায়ী সে জাহান্নামী হবে এবং কবরেও কঠোর শাস্তি পেতে থাকবে।
‘ভালো থাকুন ওপারে’ মৃত ব্যক্তি যদি কবরে স্বাধীন হতো তাহলে হয়তো সে ভালো থাকার চেষ্টা করতে পারতো। কোন মৃত ব্যক্তি কবরে স্বাধীন নয়। পুণ্যবান হলে সে কবরে সুফল ভোগ করবে। আর পাপী হলে শাস্তি ভোগ করবে।
আর আপনি জানেন না যে, সে কি অবস্থায় আছে। সে শাস্তি ভোগে মহা ব্যস্ত আর আপনি লিখছেন ‘ভালো থেকো ওপারে’ তাহলে আপনার শুভকামনা মৃত ব্যক্তির কোন উপকারে আসবেনা। উপকারে আসবে তখন- যখন আপনি মৃত ব্যক্তির জন্য হাদিয়া স্বরূপ ও দোয়া-মোনাজাত অথবা যখন ইসলামিক নিয়মে তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করবেন। ওপারে আপনার হাদিয়ে পোঁছাবে এবং আপনার হাদিয়া তার কাজে আসবে। কিন্তু তার পরিবর্তে যদি আপনি লিখেন ‘ভালো থেকো ওপারে’ সেটি মৃত ব্যক্তির কোন কাজে আসবে না বরং মৃত ব্যক্তির সাথে আপনি ধোকাবাজি ও ঠাট্টা করছেন।
ভিন্ন ধর্মের অনুসারী যদি পরলোক গমনকারী ব্যক্তিকে একই ধর্মের অপর অনুসারী যদি লিখে ‘ভালো থেকো ওপারে’ তাহলে হয়তো সমস্যা নাই। তার ধর্মীয় চিন্তা-চেতনা দিয়ে সে বলতে পারে।
কিন্তু মুসলিম ও ইসলাম ধর্মের অনুসারী হয়ে আপনি ‘ভালো থেকো ওপারে’ লিখতে পারেন না। ইসলাম আপনাকে মৃত ব্যক্তিকে নিয়ে মুক্ত চিন্তা অথবা শুভকামনার নামে ঠাট্টা করার অধিকার দেয়নি। ধর্মীয় চিন্তা-চেতনা বাদ দিয়ে নিজেকে বেশি স্মার্ট, প্রগতিশীল বুঝানোর জন্য এ ধরনের বাক্যের ব্যবহার মোটেই উচিৎ নয়।
আসুন সচেতন হই। ধর্মীয় মূল্যবোধে উজ্জীবিত হয়ে সকল অনাচার-অপসংস্কৃতি দূর করে সুন্দর সমাজ বিনির্মাণ করি।

লেখক:
এম.এ মাসুদ
ক্রিয়েটিভ গ্রাফিক্স ডিজাইনার ও
ম্যানেজিং ডিরেক্টর-
আইডিয়াল প্রিন্টার্স
কক্সবাজার।

সর্বশেষ সংবাদ

কোস্ট গার্ড কর্তৃক ৬ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ

রামুতে বন্য হাতির আক্রমণে এক বৃদ্ধা নিহত

কীর্তি মানের মৃত্যু নেই…

স্ত্রীর সাথে যৌন মিলনের ছবি ফেসবুকে দিলেন পুলিশ সদস্য

দেখুন আলিম দারের যে আউট নিয়ে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড়

বগুড়া-৬ আসনে বিএনপি প্রার্থী সিরাজ নির্বাচিত

প্রসূতি মায়ের অপ্রয়োজনীয় সিজার বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট

এড. আমজাদের তৃতীয় নামাজে জানাজায় শোকার্ত জনতার ঢল, দাফন সম্পন্ন,

টেকনাফে ৪টি অস্ত্র ও ১০ রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্রপাচারকারী আটক

আইনজীবী সমিতির পুরাতন ভবনের দেয়াল পড়ে এক শ্রমিক নিহত

কক্সবাজারের সাংবাদিকতার যতকথা (পর্ব-অষ্টম)

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ মানবপাচারকারী নিহত

‘জঙ্গিরা নিজেদের স্বার্থে তরুণদের বেহেশতের স্বপ্ন দেখায়’

চট্টগ্রামে পুলিশের স্ত্রী নারী কনস্টেলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মালুমঘাট স্টেডিয়ামে আন্ত:স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদী

তামাক চাষ বন্ধে সরকারকে আহবান জানাচ্ছি

ভাইস চেয়ারম্যান ছুট্টোকে প্যানেল চেয়ারম্যান পদে ১৫ চেয়ারম্যানের সমর্থন

তীব্র ভাঙ্গনের মুখে বাঁকখালী নদী আতংকে হাজারো মানুষ

মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ইয়াবাসহ মহিলা গ্রেপ্তার

উখিয়ায় দামী ব্রান্ডের ভেজাল পণ্য তৈরির কারখানার সন্ধান