মোঃ ওসমান গনিঃ

কক্সবাজার সদর উপজেলার পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা করা হয়েছে।
ইউপি চেয়ারম্যান রফিক আহমদের সভাপতিত্বে ও সচিব এম নুরুল কাদের’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সভায় আগামী ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের জন্য রাজস্ব ও উন্নয়ন আয় বাবৎ ২,৫৫,৯৪,৫০০ টাকা, রাজস্ব ও উন্নয়ন ব্যয় বাবৎ ২,৫৪,৩৭,৮৪০,টাকা এবং ১,৫৬,৬৬০ টাকা উদ্বৃত্ত রেখে উক্ত বাজেট ঘোষনা করেন ইউপি সচিব এম নুরুল কাদের।
বাজেটে যোগাযোগ, আর্থ সামাজিক অবকাঠামো, রাজস্ব আয় বৃদ্ধি ও নিরাপত্তা বেষ্টনি মূলক কর্মসূচিকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে এবং বাল্য বিবাহ, যৌতুক, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা ,জঙ্গী ও সন্ত্রাসবাদ, মাদকদ্রব্য, মানব পাচার, এসিড সন্ত্রাস, যৌন হয়রানী এই আটটি বিষয়কে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।
বাজেটোত্তর আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, দেশের প্রশাসনিক কাঠামোতে জাতীয় এবং স্থানীয় সরকার এ দু’ধরনের ব্যবস্থা বিদ্যমান। দেড়শত বছরের প্রাচীনতম স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদ গুলো শুধু “জগ এন্ড মগ” থিউরি দিয়ে তথা জগ (জাতীয় সরকার) থেকে ঢালবে আর মগ( স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান) এ নিবে এই নীতিতে চলবে এটি হতে পারেনা।
শুধু জাতীয় সরকারের অনুদানের উপর নির্ভর করে ইউনিয়ন পরিষদ চলতে পারেনা।
তারা আরো বলেন, সরকারের দিকে না তাকিয়ে ইউনিয়নের রাজস্ব বৃদ্ধিতে জনপ্রতিনিধিরা সচেষ্ট হলে দেশের ইউনিয়য়ন পরিষদ গুলোর চেহারা পাল্টে যাবে। স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সুশাসন নিশ্চিত করার লক্ষে প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে আবশ্যিকভাবে উন্মুক্ত বাজেট সভা করা খুবই জরুরী বলে মতামত ব্যক্ত করেন তারা।
সভায় এই মুহুর্তের জাতীয় ইস্যু তথা মাদকের ভয়াবহতা থেকে সরে এসে সরকারের পক্ষে তথা মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধে শরিক হওয়ার আহবান জানান। সভায় ঘোষিত বাজেট যথাযথভাবে বাস্তবায়নে জনপ্রতিনিধিদের আন্তরিক হওয়ার আহবান জানানো হয়।
সভাপতির বক্তব্যে চেয়ারম্যান রফিক আমদ এই উন্মুক্ত বাজেটের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে ইউনিয়নের সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
বাজেটোত্তর আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য হেলাল উদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু তাহের হেলালী, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্র নেতা ফিরোজ উদ্দিন খোকা ও এনজিও স্কাস প্রতিনিধি সফিনা আজিম প্রমুখ।
সভায় ৯ নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ মোক্তার আহমদকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের শ্রেষ্ঠ গ্রাম পুলিশ ঘোষণাপূর্বক তাকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
এতে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন সভাশেষে সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান রফিক আহমদ বিগত ২০১৭-১৮ চক্রের ভিজিডির উপকারভোগীদের সঞ্চয় টাকা বিতরণ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •