মৎস্যজীবী দলের মানববন্ধনে সাবেক এমপি লুৎফুর রহমান কাজল

৬৫ দিন মাছ ধরা বন্ধ রেখে জনগণের পেটে লাথি মেরেছে সরকার

ইমাম খাইর, সিবিএনঃ

বিএনপি’র কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী বিষয়ক সম্পাদক ও কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সাবেক এমপি লুৎফুর রহমান কাজল বলেছেন, মৎস্য আহরণ বন্ধ রাখলে যে মাছের চাষ বাড়বে তার কোনো বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণ নাই। সাগরে টানা ৬৫ দিন মাছ ধরা বন্ধ রেখে জনগণের পেটে লাথি মেরেছে সরকার। শুধু মৎস্যজীবী পরিবার নয়, সব শ্রেণীর মানুষ এখন মাছের জন্য ভোগান্তির শিকার।
সাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা বন্ধ ঘোষণার প্রতিবাদ ও ঈদুল ফিতরের পূর্বে ক্ষতিগ্রস্ত জেলেসহ মৎস্যজীবীদের পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা প্রদানের দাবিতে কক্সবাজার জেলা মৎস্যজীবী দলের মানববন্ধনে লুৎফুর রহমান কাজল প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
রবিবার (২৬ মে) দুপুরে শহীদ সরণি সড়কে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কাজল বলেন, সাগরে সব ধরনের মাছ ধরার ট্রলার নিষিদ্ধ করায় প্রভাব পড়েছে বাজারে। পবিত্র রমজান মাসে চরম আকাল চলছে মাছের। মৎস্যজীবীদের পরিবারে চলছে চরম দুর্দিন। তাদের ঈদ যাবে নিরানন্দে। কাজল বলেন, সরকার বাংলাদেশী জেলের মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারী করলেও সাগরে কিন্তু ঠিকই মাছ ধরা চলে। মিয়ানমার ও ভারতের বড় বড় ট্রলারগুলো বাংলাদেশের জলসীমায় ঢুকে মাছ ধরে নিয়ে যায়। তাতে লাভ হচ্ছে কার?
তিনি বলেন, কক্সবাজারে ১২ লাখ রোহিঙ্গাকে যদি সরকার লালন পালন করতে পারে, জেলার অল্প সংখ্যক জেলে সম্প্রদায়কে কেন পুনর্বাসন করতে পারবে না? সদিচ্ছা থাকলে মৎস্যজীবীদের পুনর্বাসন করবে সরকার।
তিনি আরো বলেন, দেশে ধানের দাম কমলেও চালের দাম কমেনি। আওয়ামী লীগ জোর করে ক্ষমতায় আছে। তারা নিজেদের স্বার্থ ছাড়া অন্য কোন স্বার্থ বিবেচনা করে না। অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকা ছাড়া সরকারের কোন সফলতা নাই।
কক্সবাজার শহর অপরিচ্ছন্ন, অপরিকল্পিত ও নোংরা শহরে পরিণত হয়েছে মন্তব্য করেন বিএনপির এই নেতা।
কক্সবাজার পৌরসভার মেয়রকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির সাবেক এমপি লুৎফুর রহমান কাজল বলেন, আপনি সম্ভব হলে সকালে ঘুম থেকে উঠে রিকশায় চড়ে শহরের অলিগলির কি অবস্থা ভালোভাবে ঘুরে দেখুন। কোথাও উন্নয়নের চিত্র চোখে পড়ার মতো নয়। পৌর এলাকার করুণ চিত্র। ময়লা-আবর্জনায় ভরে গেছে ড্রেনগুলো। চারিদিকে দখল আর দখল। নাগরিক সুবিধা পাচ্ছে না পৌরবাসী।
কক্সবাজার জেলা মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক ও পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর সালামত উল্লাহ বাবুলের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মোস্তফা কামালের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- মৎস্যজীবী দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও কক্সবাজার জেলার সাবেক সভাপতি হামিদ উদ্দিন ইউসুফ গুন্নু, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী পৌর কাউন্সিলর নাসিমা আকতার বকুল, জেলা মৎস্যজীবী দলের যুগ্মআহবায়ক রেদোয়ান ছিদ্দিকী, কক্সবাজার জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহাদাত হোসেন রিপন, সাধারণ সম্পাদক ফাহিমুর রহমান ফাহিম প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, মৎস্যজীবীদের পুনর্বাসন না করে ঈদ মৌসুমের আগেই সাগরে মাছ ধরা বন্ধ করা চরম অমানবিক হয়েছে। সরকার গরীব দুঃখি মেহনতি মানুষের ভাতের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। সরকারের এই সিদ্ধান্ত অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানায় বক্তারা। সমাবেশে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, কৃষক দল, মৎস্যজীবী দলসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

ওসি মোয়াজ্জেম আদালতে

ভুঁয়া ফেসবুক আইডিতে অপপ্রচারকারী প্রতারককে ধরিয়ে দিন -লায়ন মুজিব

সিবিএন’র রেকর্ড: ২৪ ঘন্টায় এক প্রতিবেদন লক্ষাধিক শেয়ার!

ইতালিতে আন্তর্জাতিক ব্যাংকার সম্মেলনে শাহজাহান মনির

স্কুলে পাকা সিঁড়ি না থাকায় ঘটছে দুর্ঘটনা

ওসির দায়িত্ব পাচ্ছেন অ্যাডিশনাল এসপি

ট্রাম্পের নামে ইসরায়েলের অবৈধ বসতির উদ্বোধন

প্রথমবারের মতো মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে জাতিসংঘ

ব্যক্তির অপকর্মের দায় কেন নেবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন

আজ নির্বিঘ্নেই হবে বাংলাদেশের ম্যাচ!

ওসি মোয়াজ্জেমকে ফেনী পুলিশের কাছে হস্তান্তর

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের মাসিক সমন্বয় সভা

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের আজীবন সম্মাননা পেলেন নায়িকা মৌসুমী

পেটের দায়ে রিকশা চালাচ্ছে রুমানা!

৪৭ বছরের অন্ধকার থেকে মুক্ত হলো ৪৮ হাজার মানুষ

পুলিশের অভিযানে ১৭ আসামী গ্রেফতার

স্থানীয়দের নির্মাণকৌশল, ব্যবসায় দক্ষতা বিষয়ে প্রশিক্ষণ

উপাচার্যের দুর্নীতির অভিযোগ: দুদককে তথ্য দিচ্ছে চবি

চকরিয়ায় স্ত্রীর মামলায় সাজাপ্রাপ্ত স্বামী গ্রেফতার

৭ বছরের শিশু ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার