cbn  

সিবিএন ডেস্ক:
ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়ায় ৪ ধারার নোটিশ জারির পর জেলা প্রশাসকের (ডিসি) কাছে প্রতিকার চাওয়া ছাড়া কেউ কোনো মামলা করতে পারবে না। এ সংক্রান্ত পরিপত্র জারি করেছে ভূমি মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার ভূমি মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু করে আইনের ৪ ধারার নোটিশ জারির পর কোনো কোনো জেলায় অধিগ্রহণ প্রস্তাবাধীন ভূমি নিয়ে আইনের বিধান অনুসারে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রতিকার না চেয়ে মামলা মোকদ্দমা করা হচ্ছে। এমনকি একই আইনের ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়ায় ৮ ধারা (আগের স্থাবর সম্পত্তি অধিগ্রহণ ও হুকুমদখল অধ্যাদেশ, ১৯৮২-এর ৭ ধারা) নোটিশ জারির পর মানুষকে হয়রানির উদ্দেশ্যে মাঠপর্যায়ে কোনো কোনো অসাধু চক্রের যোগসাজশে অন্য একজনকে দাঁড় করিয়ে টাইটেল মোকদ্দমা করা হচ্ছে।

এই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলার কারণে ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয় জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এতে জমির প্রকৃত মালিকরা অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ও দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছেন। সংবিধানের ৪২(২) অনুচ্ছেদে ক্ষতিপূরণসহ বাধ্যতামূলকভাবে স্থাবর সম্পত্তি গ্রহণের ক্ষেত্রে আদালতে কোনো প্রশ্ন উত্থাপন বা মামলা না করার বিষয়ে বলা হয়েছে। স্থাবর সম্পত্তি অধিগ্রহণ ও হুকুম দখল আইন, ২০১৭ এর ৪৭ ধারায় অধিগ্রহণ কার্যক্রমের বিরুদ্ধে মামলা মোকদ্দমা না করার বিষয়েও বিধি নিষেধ রয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এমতাবস্থায় সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম ত্বরান্বিত করা এবং জনভোগান্তি লাঘবের লক্ষ্যে ভূমি অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে আইনের ৪ ধারা (আগের আইনের ৩ ধারা) এবং ৮ ধারা (আগের আইনের ৭ ধারা) নোটিশ জারির পর আর কোনো অভিযোগ গ্রহণের সুযোগ নেই বিধায় আইনের ৪৭ ধারা যথাযথভাবে প্রতিপালনের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ করে পরিপত্র জারি করে ভূমি মন্ত্রণালয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •