জাহাঙ্গীর আলম কাজল:
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মো: শফিউল্লাহ  বলেছেন- ১৮ মে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা উৎসব মুখর পরিবেশে উদযাপিত হবে। এজন্য উপজেলা পরিষদ ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারীতে রয়েছে। বুদ্ধ পূর্ণিমা উৎসবকে ঘিরে স্ব স্ব বৌদ্ধ মন্দির বা বিহারে
নিজস্ব সেচ্ছাসেবকদ্বারা অপরিচিত লোক সনাক্তকরণ ও নিজেদের সর্তকর্তা অবলম্বনের জন্য উদাত্ত আহবান জানিয়ে তিনি আরো বলেন- পুলিশের স্পেশাল টীম সংশ্লিষ্ট এলাকায় দায়িত্ব পালন করবে এবং তাদের সহযোগীতা নেয়া যাবে। এছাড়া থানার ওসির নম্বরে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ করা যাবে। ১৫ মে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৩১টি বৌদ্ধ বিহার ও বৌদ্ধ পল্লীর বিভিন্ন বিহার/ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ -বিহার কমিটির সভাপতি /সাধারন সম্পাদক ও বৌদ্ধ সাংগঠনিক ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে আসন্ন বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা একথা বলেন। থানা মিলনায়তনে ওসি মোঃ অানোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত এ মতবিনিময় সভায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৩১টি বৌদ্ধ বিহার কমিটির সভাপতি সাধারণ ও বৌদ্ধ পল্লীর ব্যক্তিবর্গ উপস্হিত ছিলেন।
থানার ওসি তদন্ত জায়েদ নুরের সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন, থানার সেকেন্ড অফিসার মো: জাফর ইকবাল, এসআই রাজিব,এসআই নু্রুল আমিন, এসআই খোকন, এসআই সেলিম, এএসআই রফিক, এএসআই রাজিব প্রমূখ।
মতবিনিময় সভায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ৩১টি বৌদ্ধ বিহার ও বৌদ্ধ পল্লীর প্রায় বৌদ্ধ বিহার সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপন্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •