নিজস্ব প্রতিবেদক:
অস্ত্রধারী, চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীদের বেপরোয়া হামলায় এক আওয়ামীলীগ নেতার দুই ঠিকাদার পুত্র গুরুতর আহত হয়েছে।

১১ মে সকাল ৭ টায় রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের চেইন্দাস্থ মা-মণি হাসপাতাল মাঠে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় আহতরা হলেন-দক্ষিন মিঠাছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সম্পাদক রশিদ আহমদের পুত্র মুজিবুল হক (২০), তাঁর ভাতিজা ঠিকাদার আবদুস সালাম (৩৪)। আহত দু’জনকেই আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে স্বজনরা।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়-মা-মণি হাসপাতালের চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ডে ঠিকাদারী করে আসছিল স্থানীয় বজল আহমদের পুত্র আবদুস সালাম। অভিযোগ রয়েছে- নাশকতাসহ হাফ ডজন মামলার পলাতক আসামী আবছার কামাল দীর্ঘ দিন ধরে ঠিকাদার আবদুস সালামের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে আসছিল। কিন্তু সালাম তা দিতে অস্বীকার করায় গতকাল সকালে আবছার কামালের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী্ব এনাম, সাহেদ, কবির ঠিকাদার সালামের উপর স্বশস্ত্র হামলা চালায়। এ সময় সালামের সাথে থাকা মুজিবুল হককেও বেদম মারধর করে। হাসপাতালের স্টাফ-নার্সের উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে বীর দর্পে স্থান ত্যাগ করে। পরে আহতের স্বজনরা এগিয়ে এসে রক্তাক্ত অবস্থায় ২ জনকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।
এদিকে আহত মুজিবের বাবা আওয়ামী লীগ নেতা রশিদ আহমদ জানান-হামলাকারীরা প্রত্যেকে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী এবং বিভিন্ন হামলা. নাশকতা মামলার আসামী। এদেরকে দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় আনা না গেলে তাহলে দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ড বাধা গ্রস্থ হবে। এ ঘটনায় পুরো চেইন্দায় তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। রামু থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান আহতদের স্বজনরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •