প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
রামু উপজেলার চাকমারকুল আল-জামিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসা পরিচালনায় ব্যাপক সংস্কারমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হলো। ইতঃপূর্বে মাদ্রাসাটিতে আর্থিক অনিয়মসহ বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতেই এমন সিদ্ধান্ত। গৃহীত এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয়া হলো মাদ্রাসাটির মতোয়াল্লী গ্রুপকে। সেই সিদ্ধান্ত মাদ্রসাটির মোহতামিমকে আগামি ২০ রমজানের মধ্যে বাস্তবায়নের আহবান জানানো হয়। সর্বসম্মতিক্রমে বর্তমান মুহতামিমকে বাদ দিয়ে মুফতি মাওলানা আবদুর রাজ্জাকের উপর ভারপ্রাপ্ত মুহতামিমের দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। সংস্কারের অংশ হিসেবে এটি করা হয়। পাশাপাশি মাদ্রাসাটিতে কর্মরত শিক্ষক মাওলানা নযির আহমদ এবং সাজেদুল করিমকে অব্যাহতি দেয়াসহ মাওলানা নুরুল আমিনকে হিসাব বিভাগ থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় নূরানী বিভাগে।

তবে, আলোচনাধীন রাখা হয়েছে আবুল কালাম’র বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের বিষয়। আল-জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসা পরিচালনায় অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারী আচরণ ও শৃঙ্খলাহীনতার অভিযোগের প্রেক্ষিতে মোতয়াল্লি গ্রুপের সদস্যরা এক জরুরী সভা করেন। চাকমারকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সিকদারের সভাপতিত্বে গত ২৭ এপ্রিল আলহাজ¦ জালাল আহমদের বাড়িতে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভার উল্লিখিত ৩ শিক্ষকের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ ছাড়াও ২৩ সদস্য বিশিষ্ট মজলিশে শুরা পুনর্গঠন, ৭ সদস্য বিশিষ্ট মজলিশে এলমি পুনর্গঠন, ৭ সদস্য বিশিষ্ট মজলিশে আমেলা পুনর্গঠন এবং ৩ সদস্য বিশিষ্ট অডিট কমিটি পুনর্গঠনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির গুরুত্বপূর্ণ ওই সভায় প্রধান পৃষ্ঠপোষক হওয়া সত্বেও আল্লামা আহমদ শফি সাহেব হুজুরকে মজলিশে শুরা থেকে বাদ দেয়া। মাদ্রাসা ফান্ডের ৫০ লাখ টাকা ব্যয়। মাদ্রাসার মনমতো রেজুলেশন তৈরি। হারাম কাজকে আইনি ব্যাখায় বৈধতা দিয়ে কুফরি, মৌলানা সিরাজের আয়-ব্যয় সংক্রান্ত দুর্নীতির বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করা হয়। মাদ্রাসার দাতা সদস্য এন. আলম বলেন, রোববার জোহরের নামাজের পর মোওয়াল্লি গ্রুপের সদস্যবৃন্দ এবং শিক্ষকদের সম্মতিক্রমে মুফতি মাওলানা আবদুর রাজ্জাকের উপর ভারপ্রাপ্ত মুহতামিমের দায়িত্ব অর্পণ করে মাদ্রাসার কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধাস্ত গৃহীত হয়। উল্লেখ্য, চাকমারকুল আল-জামিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসায় অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগে মাদ্রাসার মুহতামিমের অপসারণ চেয়ে মাদ্রাসাটির অফিস কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছিলেন মুতয়াল্লিগণ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •