আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
নিজেদের স্ত্রী অদল-বদল করে যৌন সঙ্গমে ‘নতুনত্ব’ আনার পরিকল্পনা করেছিলেন ভারতের কেরালা প্রদেশের চার ব্যক্তি। কিন্তু তাদের সে পরিকল্পনা ভেস্তে যায় যখন একজনের স্ত্রী পুলিশের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ওই চার ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, অভিনব এই ঘটনাটি ঘটেছে কেরালার আলপ্পুজহ জেলার কায়ামকুলাম শহরে। গত বছরের মার্চে গ্রেফতার ওই চার ব্যক্তি নিজেদের স্ত্রী বদলের প্রক্রিয়াটি শুরু করেন ।

অভিযোগকারী ওই নারীর দেয়া ভাষ্য মতে, সামাজিক যোগাযোগ ম্যাধ্যম শেয়ারচ্যাট অ্যাপের মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী কালিকট নামক এলাকার বাসিন্দা আরশাদের সঙ্গে তার স্বামীর পরিচয় হয়। তারপর থেকেই আরশাদের সঙ্গে স্ত্রীকে যৌন সঙ্গম করতে চাপ দিতে থাকেন তার স্বামী।

স্বামী প্রতিনিয়ত এমন চাপ প্রয়োগ করলেও তাতে অসম্মতি ছিল স্ত্রীর। কিন্তু আরশাদ নামে পাতানো বন্ধুর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক তৈরির জন্য স্ত্রীকে নানাভাবে রাজি করানোর চেষ্টা করেন তার স্বামী। কোনোভাবে স্বামীকে বোঝাতে না পেরে অবশেষে বাধ্য হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন।

মামলার তদন্তকারী জানান, হোয়াটসঅ্যাপ বা ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে যোগাযোগ করলে আপনি কার সঙ্গে কথা বলছেন তা জানতে পারবেন। কিন্তু শেয়ারচ্যাটের ক্ষেত্রে আপনার পরিচয় ও বিস্তারিত ছাড়াই অন্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন। তাই এ অ্যাপটি ব্যবহার করে যৌন সঙ্গমের জায়গা, দিন ও সময় নির্দিষ্ট করেছিল অভিযুক্তরা।

তবে আরশাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার আগে আরও অনেকের সঙ্গে নিজের স্ত্রীকে যৌন সঙ্গম করতে বাধ্য করেন তিনি। এ ঘটনার তদন্তে নেমে ওই নারীর স্বামীসহ চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •