হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ :
টেকনাফে গভীর পাহাড়ে অপহৃত ২ রাখালকে খুঁজতে গিলে মিলল এক অজ্ঞাত তরুনীর অর্ধগলিত লাশ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থাল থেকে লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তরুনীর বয়স আনুমানিক ১৮/২০ বছর হবে। তবে এখনো নিখোঁজ রয়েছে অপহৃত ২ রাখাল।
স্থানীয় ইউপি সদস্য হাফেজ আহমদ জানান, মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) সকালে উপজেলার উপকূলীয় ইউনিয়ন দক্ষিণ শিলখালী এলাকার এলাকাবাসী চকিদার পাড়ার গভীর পাহাড়ে রবিবার ডাকাতের হাতে অপহৃত সেলিম উল্লাহ ও কাশেম আলীকে খুঁজতে গেলে জঙ্গলে এক চিপার গলিতে অর্ধ গলিত তরুনীর লাশ দেখে স্থানীয়রা। পরে পুলিশকে খবর দিলে দুপুরে বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। স্থানীয়দের দাবী ঘটনার সাতে জড়িত সবাই রোহিঙ্গা ডাকাত হতে পারে। স্থানীয়দের মতে, ৮/১০ দিন আগে পাহাড়ে অবস্থানরত ডাকাত দলের সদস্যরা ঔ তরুনীকে অপহরণের পর ধর্ষণের করে হত্যা করছে। এখনো পর্যন্ত লাশটির পরিচয় সনাক্ত করা যায়নি।
উল্লেখ্য, ২৮ এপ্রিল রবিবার বাহারছড়া দক্ষিণ শিলখালীর ছৈয়দ করিমের পুত্র মোঃ সেলিম উল্লাহ (১৫) ও একই এলাকার শহর মল্লুকের পুত্র কাশেম আলী (৫০) গভীর পাহাড়ে মহিষ খোঁজতে গেলে ডাকাতের কবলে পড়ে অপহরণের শিকার হয়। পরে ডাকাত সদস্যরা অপহৃতের পরিবারের কাজে একাধিকবার ফোন করে ৫লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এই ঘটনা স্থানীয় স্থানীয় হাফেজ আহমেদকে জানালে তিনি স্থানীয় পুলিশকে অবগত করেন। এদিকে অপহৃতরা উদ্ধার না হওয়া তাদের পরিবারে উৎকন্ঠ দেখা দিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •