মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আজাদ, ঈদগাঁও, কক্সবাজার :

 

কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের ওয়াহেদর পাড়া গ্রামের আবদুর রশিদের পুত্র নুরুল আজিম (২৮) তার শ^শুর পক্ষের সন্ত্রাসীদের হাতে গুরুতর আহত হয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। গতকাল ২৯ এপ্রিল বেলা ১২টার দিকে পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের পূর্ব পাশের্^ সড়কের উপর এ ঘটনা ঘটে। ইউপি সদস্য ও স্থানীয় জনতা মূমূর্ষ অবস্থায় জামাই নুরুল আজিমকে উদ্ধার করে ঈদগাঁওতে নিয়ে আসলে আত্মীয় স্বজনরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নুরুল আজিমের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। স্থানীয় লোকজন ও গুরুতর আহত নুরুল আজিমের বড় ভাই ফরিদুল আলম জানান, নুরুল আজিম ও তার স্ত্রী রোজিনা আক্তারের মাঝে মনোমালিন্য হওয়ার জের ধরে শ^শুর পক্ষের লোকজনের কাছে অভিযোগ দায়ের করে নুরুল আজিম। কিন্তু কোন সূরাহা না হওয়ায় অবশেষে বিষয়টি পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে বিচার দায়ের করে। গতকাল ছিল বিচারের নির্দিষ্ট দিন। এদিকে নিজ বাড়ী ওয়াহেদর পাড়া থেকে নুরুল আজিম ও তার স্ত্রী রোজিনা আক্তার পরিষদে গিয়ে চেয়ারম্যানের কাছ থেকে সময় নিয়ে চলে আসার মুহুর্তেই শ^শুর বাড়ির লোকজন রাশেদ, বাবুল ও ইসলামের নেতৃত্বে এ হামলার ঘটনা ঘটে। অপরদিকে কান্নাজড়িত কন্ঠে নুরুল আজিম জানান, পরিষদ থেকে ফিরে আসার মুহুর্তেই তার স্ত্রী রোজিনার ইশারায় ইসলাম, বাবুল ও রাশেদের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হাতুড়ি, লোহার রডসহ বিভিন্ন অস্ত্র দিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে তাকে পিটিয়ে মাটিতে ফেলে রাখে। পরের ঘটনা তার জানা নেই। স্থানীয় সচেতন মহলের দাবী, নুরুল আজিম পরিষদ থেকে বের হলেই পরিকল্পিতভাবে শ^শুর পক্ষের লোকজন এ ঘটনা ঘটিয়েছে। বর্তমানে সে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনা সম্পর্কে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অবহিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •