আবুল কালাম, চট্রগ্রাম :
চট্টগ্রামের  আন্দরকিল্লা এলাকায়  ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সরকারী  জেনারেল হাসপাতাল  পরিদর্শন করেছেন  শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল  হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি। এসময় তিনি বলেন, চট্টগ্রামের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ সরকারি চিকিৎসা কেন্দ্রটি মেডিকেল কলেজ চালুর জন্য প্রস্তাব দেওয়া হবে বলে জানান।
শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) বিকেলের দিকে তার নির্বাচনীয় এলাকায় অবস্থিত এ চিকিৎসা কেন্দ্রটি পরিদর্শন করেন।
পরিদর্শন শেষে নওফেল বলেন, জেনারেল হাসপাতালে সার্বক্ষণিক সেবা চালু হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চাপ কমবে। এতে চিকিৎসার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি সেবার পরিধিও বাড়বে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন হাসপাতাল তত্ত্বাবধায়ক ডা. অসীম কুমার নাথ, আন্দরকিল্লা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী সহ আরও অনেকে।
উল্লেখ্য, নগরীর আন্দরকিল্লা এলাকায় ১৯০১ সালে এ হাসপাতাল গড়ে উঠে। তখন শুধু বহির্বিভাগে সেবা পেতেন রোগীরা। নতুন ভবন নির্মাণের মাধ্যমে ১৯৮৬ সালে ৮০ শয্যার কার্যক্রম শুরু হয় এ হাসপাতালে। এখনো সে ভবনটি বিদ্যমান রয়েছে। ২০০৩ সালে এ হাসপাতালকে দেড়শ শয্যায় উন্নীত করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু জনবল না বাড়িয়ে সর্বশেষ ২০১২ সালে এটিকে আড়াইশ শয্যার হাসপাতাল ঘোষণা করা হয়।
জেনারেল হাসপাতালে ওয়ার্ড রয়েছে ১৪টি। এরমধ্যে সার্জারি, ইএনটি ও অর্থোপেডিক্সের ওয়ার্ড ৬টি। এছাড়া রয়েছে গাইনি ও প্রসূতি, মেডিসিন, শিশু, চক্ষু, কিডনি ও হৃদরোগ ওয়ার্ড।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গড়ে প্রতিমাসে ২০ হাজার রোগীকে সেবা দেওয়া হয়।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •