এ কে এম ইকবাল ফারুক,চকরিয়া :

চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সুধাশু পাহাড়স্থ হিন্দু পাড়া এলাকায় বুধবার রাতে সংগঠিত অগ্নিকান্ডে পুড়ে যাওয়া চারটি বাড়ি পরিদর্শন করেছেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীন মোহাম্মদ শিবলী নোমান। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ এসব বাড়ি পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি অগ্নিকান্ডে পুড়ে যাওয়া চার পরিবারের লোকজনের সাথে কুশল বিনিময় করেন এবং তাদের খোঁজ খবর নেন।

পরে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোর মাঝে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা হিসেবে প্রতিটি পরিবারকে দুই বান টিন, ১০ কেজি চাউল, দুই কেজি ডাল, দুই কেজি চিড়া, মোবাতি ও নগদ ছয় হাজার টাকা করে প্রদান করেন। এসময় চকরিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান, উপজেলা আইসিটি টেকনিশিয়ান মো. এরশাদুল হকসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত: গত বুধবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সুধাশু পাহাড়স্থ হিন্দু পাড়া এলাকায় অগ্নিকান্ডে চারটি বসতবাড়ি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। একটি বাড়ির বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়ে মূহুর্তের মধ্যেই পাশাপাশি চারটি বাড়ি পুড়ে যায়। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তিরা হলেন, স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক ডা. অরুণ কান্তি দে, তার ভাই যদু কান্তি দে ও অমর কৃষ্ণ দে এবং ডা. অরুণ কান্তি দে’র বড় ছেলে ডা. অরুপ দে। ক্ষতিগ্রস্থ ডা. অরুণ কান্তি দে বলেন, অগ্নিকান্ডে তাদের চারটি পরিবারের নগদ টাকা, টিভি, ফ্যান, ফ্রিজ, ধান ও বিভিন্ন সরঞ্জামসহ অন্তত ৩০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •