চট্টগ্রামে লালদিঘীতে আজ মেলা, কাল বলীখেলা

আবুল কালাম , চট্টগ্রাম :

চট্টগ্রামের লালদীঘি মাঠে ঐতিহ্যবাহী আবদুল জব্বারের বলীখেলার ১১০তম আসরের আজ ২৫ এপ্রিল থেকে শুরু হল তিন দিন ব্যাপী বৈশাখী মেলা ও বলীখেলাকে ঘীরে নগরীর লালদিঘী ও কোতোয়ালী এলাকার চারদিকে বিভিন্ন পসরা সাজিয়ে বসেছেন দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ব্যবসায়ীরা। পছন্দের পণ্য কিনতে ছোট বড় সব বয়সী মানুষই ব্যস্ত। আর দল বেঁধে ঘুরছে শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণীরা। চার দিকে হৈ হৈ রব তুলে।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিকালে লালদীঘি ময়দানে বৈশাখী মেলায় গিয়ে দেখা যায়, মেলায় মানুষের ঢল। এ বৈশাখী মেলায় কি নেই, গেরস্তালির সব পণ্যই মিলছে এ মেলায়। আসবাবপত্র, ঝাড়ু, রসুইঘর থেকে শুরু করে ড্রইংরুম সাজানোর নানান চটকদার জিনিসপত্র, মেয়েদের সাজসজ্জার বাহারি রেশমি চুড়ি, বাচ্চাদের খেলনাপাতি, হাতপাখা, মাটির শৌখিন পণ্য আর রসালো ফলের সমাহার।

এ ছাড়াও মেলায় রয়েছে ফলের বীজ, গাছের চারা, চাঁই, ডালা, কুলা, আঁড়ি, তামা ও কাঁসার তৈজসপত্র, দা-বঁটি, খুন্তি, ঝাড়ু, বেলুনি, পিঁড়িসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সব জিনিস। এত কিছু আছে, আর মুড়ি-মুড়কির দোকান থাকবে না তা কী করে হয়। রয়েছে বিভিন্ন খাবারের দোকানও। এসব দোকানে দেদার বিক্রি গজা, খই, মুড়ি-খইয়ের মোয়া, তিলের মোয়া, চিনিমাখা ছোলা, জিলাপি, মিষ্টি, দই, চানাচুর, আচারসহ মৌসুমি ফল।

বিক্রি কেমন হচ্ছে জানতে চাইলে বিক্রেতারা বলেন, সকাল বেলা তেমন বিক্রি ছিল না। দুপুর পেরোতেই ক্রেতাদের ঢল নামে। প্রথম দিবস হিসেবে দুপুর থেকে ভালোই বিক্রি হয়েছে। মেলার শেষ পর্যন্ত যেন এইভাবে বিক্রিটা থাকে সে আবেদনই জানাই আল্লাহর কাছে।

মেলায় ঘুরতে আসা দর্শণার্থীরা বলেন, আজ মেলার প্রথম দিন হলেও মানুষ সমাগম অনেক বেশি। ঘরের সব জিনিসপত্রই মেলায় উঠেছে। কাল জব্বারের বলী খেলা মানুষের ভিড় কালকে আরো বেশি হবে।

বলীখেলার উদ্বোধন করবেন সিএমপি পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণ করবেন প্রধান অতিথি সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এবারের বলীখেলায় চ্যাম্পিয়ন প্রাইজমানি বিশ হাজার টাকা ও ট্রফি এবং রানার্স আপ পনোরো হাজার টাকা ও ট্রফি পাবেন। এছাড়া প্রথম রাউন্ডের বিজয়ী চল্লিশ জন বলীর প্রত্যেকে এক হাজার টাকা সাথে ট্রফি পাবেন।

উল্লেখ্য, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ ও শারীরিকভাবে সক্ষম করে তুলতে ১৯০৮ সালে চট্টগ্রাম মহানগরীর বদরপাতি এলাকার আবদুল জব্বার সওদাগর কুস্তি নামক এ বলী খেলার প্রচলন করেন। কালের পরিক্রমায় জব্বার সওদাগরের বলী খেলা এবং বৈশাখী মেলা চট্টগ্রামের ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে। শুরু থেকে টানা ১১০ বছর ধরে চলছে এই বলী খেলা এবং মেলা। এমনকি মহান মুক্তিযুদ্ধের টালমাটাল দিনগুলোতেও এই খেলা ও মেলা চলছে তার আপন গতিতে।

সর্বশেষ সংবাদ

শত বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি যে গ্রামে

দিল্লি থেকে উচ্চ পর্যায়ের সফর আশা করছে ঢাকা

পেটের ভেতরে করে ইয়াবা পাচার করছে রোহিঙ্গারা

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিএইচটিএম বিভাগের ইফতার মাহফিল

চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি সাংবাদিকতা, কোণঠাসাও

ধর্ষণ: বেশি শিকার শিশুরা

মোদিকে বিএনপির অভিনন্দন

হালিম প্রতারণা !

শিক্ষক সমাজের জীবন্ত আদর্শ ও শিক্ষাগুরু কবি আফজল আহমদ বি.এ

কোনাখালী শতাধিক ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছেন কৃষি খাসজমি

লংগদুতে মায়ের বকুনি সহ্য করতে নাপেয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

চকরিয়া সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক বাঙ্গালী পাঠান আর নেই

মাতামুহুরী সেতু আবারো ভাঙনে জনদুর্ভোগ চরমে

খুটাখালীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন: বনভূমি কেটে বালু দস্যুদের সড়ক নির্মাণ

কক্সবাজার কারাগার থেকে ইয়াবা উদ্ধার

স্থানীয়রাও সমপরিমাণ সহায়তা পাবে : দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী

কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাচন ১৩ জুন: নিষ্পত্তি হয়নি চেয়ারম্যান পদের রুল

হোপ ফাউন্ডেশনের ‘আন্তর্জাতিক ফিস্টুলা নির্মূল দিবস উৎযাপন

খুরুশ্কুল ইউনিয়নের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা

কর্ণফুলী নদীতে পাথরবোঝাই ‘সী-ক্রাউন’ জাহাজ ডুবি