১মে থেকে কাপ্তাই হ্রদে সকল প্রকারমৎস্য আহরণ-বিপনন নিষিদ্ধ

আলমগীর মানিক, রাঙামাটি:

চলতি মাস শেষে আসন্ন মে মাসের প্রথম তারিখ থেকেই দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার বৃহত্তম কৃত্রিম কাপ্তাই হ্রদে সকল প্রকার মৎস্য সম্পদ আহরণ ও বিপনন বন্ধ হতে চলেছে। এই লক্ষ্যে মঙ্গলবার রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সভায় জানানো হয় আগামী পহেলা মে থেকে আগামী ৩১শে জুলাই পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকিবে। রাঙামাটি জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) রাঙামাটি কাপ্তাই হ্রদ মৎস্য উন্নয়ন ও বিপণন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে এ সিদ্ধান্ত কার্যকরের ঘোষণা প্রদান করেন।

সভায় রাঙামাটির জেলা প্রশাসক এ একে এম মামুনুর রশিদের সভাপতিত্বে এতে বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) রাঙামাটি কাপ্তাই হ্রদ মৎস্য উন্নয়ন ও বিপণন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক নৌ কমান্ডার মো: আসাদুজ্জামান খান-বিএন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম শফি কামাল ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জেলা প্রশাসক বলেছেন, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সর্ববৃহৎ কৃত্রিম জলধারা ও বাংলাদেশের প্রধান মৎস্য উৎপাদন কেন্দ্র রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদে মাছের সুষ্ঠু ও প্রাকৃতিক প্রজনন, বংশ বৃদ্ধি এবং উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মাছধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা চলাকালে কাপ্তাই হ্রদে এলাকায় সকল প্রকার মৎস্য আহরণ, সংরক্ষণ বাজারজাতকরণ, শুকানো ও পরিবহণ সম্পন্ন নিষিদ্ধ থাকবে। কেউ যদি এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে, তার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। একই সাথে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করবে বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) রাঙামাটি কাপ্তাই হ্রদ মৎস্য উন্নয়ন ও বিপণন কেন্দ্রের সকল কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা, রাঙামাটির পুলিশ বাহিনী কর্তৃপক্ষ। এসময় রাঙামাটি ও কাপ্তাই হ্রদ সংশ্লিষ্ট্য সকল বরফ কলও বন্ধ থাকবে। একই সাথে নির্ধারিত অভায়াশ্রম সব সময়ের জন্য মৎস আহরণ পূর্বের মতোই বন্ধ থাকবে। তবে বন্ধকালীন সময় বেকার মৎস্যজীবীদের জন্য খাদ্যশষ্য প্রদান করা হবে।

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) রাঙামাটি কাপ্তাই হ্রদ মৎস্য উন্নয়ন ও বিপণন কেন্দ্র ব্যবস্থাপক কমান্ডার মো. আসাদুজ্জামান জানিয়েছেন, বৃহত্তর স্বার্থে কাপ্তাই হ্রদে প্রতি বছর মাছ ধরার উপন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। কারণ বন্ধকালীন এ সময়টুকু মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন হয়। তাছাড়া এ সময় পর্যপ্ত পোনাও অবমুক্ত করা হয়। এ পোনা মাছ বড় হতে প্রায় তিন মাস সময় লেগে যায়। তাই কাপ্তাই হ্রদের মাছ আহরণ ও বিপননের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। কারণ এ মাছ বড় হলে এর সুবিধা সবাই ভোগ করবে। কাপ্তাই হ্রদের উপর নির্ভরশীল পরিবারগুলো সুফল ভোগ করবে। এই লক্ষ্যে কাপ্তাই হ্রদে মাছ ধরা বন্ধকালীন সময়ে যাতে করে কোনো অসাধু চক্র মাছ ধরতে বা বিক্রি করতে নাপারে সেই লক্ষ্যে রাঙামাটিবাসীর সার্বিক সহযোগিতাও কামনা করেছেন তিনি।

সর্বশেষ সংবাদ

পেকুয়ায় ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

চকরিয়ায় ইয়াবাসহ যুবক গ্রেপ্তার

সৌদিআরবে প্রবাসী সমাবেশ ও হাজীদের সংবর্ধনা

উখিয়ায় লক্ষাধিক রোহিঙ্গার সমাবেশ থেকে বিশ্ববাসীর কাছে ৫ দফা

পেকুয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

কর্ণফুলী টানেলের বিশাল কর্মযজ্ঞ

রোহিঙ্গারা নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে : ২ বছরে ৪৭১ মামলায় ১০৮৮ জন আসামী

পেকুয়ায় সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে মাসিক আইন শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত

রাঙ্গামাটি পৌরসভার ১১৫৪,৭৯৫,০০০ টাকার বাজেট ঘোষনা

চট্টগ্রাম মেরিন একাডেমির প্রতিষ্ঠা দিবস আমন্ত্রণ ও পুরষ্কার কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

ঈদগাঁওতে এক ব্যবসায়ীর মোটর সাইকেল চুরি

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটনেের গ্র্যান্ড মাষ্টার প্যারেড অনুষ্ঠিত

হালিশহর আ’লীগের দুই গ্রুপে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া : পন্ড সমাবেশ

টেকনাফ উপজেলা বিএনপির সম্মেলন সম্পন্ন, তৃণমূল নেতাকর্মীদের নতুন নেতৃত্ব প্রত্যাশা

নাইক্ষ্যংছড়িতে মাসিক আইন শৃঙ্খলা সভা

স্বামীর অতিরিক্ত ভালোবাসায় বিরক্ত স্ত্রী তালাক চাইলেন

জামালপুরের নতুন ডিসি এনামুল হক

দু’বছর পুর্তিতে দাবি আদায়ে রোহিঙ্গাদের বিশাল সমাবেশ

মহাসংকটে বাংলাদেশ