নষ্টখাদ্য ক্ষতি করছে পৃথিবীকে!

আওলাদ হোসেন সাগর

নেদারল্যান্ডে এসে পড়াশোনা কি শিখছি তা জানিনা কিন্তু একটা বিষয় জানলাম তারা মানুষকে কিভাবে সম্মান করে এবং সকল পেশাকে কিভাবে সম্মান করে। আর একটা বিষয় জানলাম আসলে সাস্টেনিবিলিটি মানে তারা কি চিন্তা করে। যাক বিদেশী খোরমা -খেজুরের গল্প শুনে আমাদের লাভ কি হবে? গত সাপ্তাহে সৌভাগ্যক্রমে EU এর একটা কনফারেন্সে যাওয়ার সুযোগ হয়েছিল এবং বিশেষ একটা students সেশন ছিল।

যারমধ্যে কিছু তথ্য ছিল –
বিশ্বের মোট খাদ্য উৎপাদনের ৩০% খাদ্য ওয়েস্টেজ হয় এবং ২৫% খাদ্য নষ্ট করে শুধুমাত্র চুড়ান্ত ভুক্তারা। EU Commissioner (agriculture) Phil Hogan তার বক্তব্যের এক পর্যায়ে বললো …যে রাঁধুনি ব্রোকলির বাইরের অনেক অংশ ফেলে দিয়ে বাকিটা রাঁন্না করে স্মার্ট রাঁধুনি মনে করে সে কি জানে সে পৃথিবীর এবং তার সন্তানের কি ক্ষতি করছে? UNWFP এর Executive Director Ertharin Cousin বলল বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের ৮% দায়ী হলো ফুড ওয়েস্টেজ। Rabo Bank এর চেয়ারম্যান Wiebe Draijer এগ্রিকালচারাল loan recovery এবং ফুড ওয়েস্টেজ এর সম্পর্ক কি তা ভালই আলোচনা করল। Vbites এর ফাউন্ডার Heather Mills শোনালো ভেগান হওয়ার গল্প। মোট ২০ জন প্রেজেন্টারের বিভিন্ন বিষয় জানানোর শেষে সবাই প্রায় একমত হল প্রযুক্তির মাধ্যমে সব সম্ভব কিন্তু আমাদের আচরণ বা অভ্যাস পরিবর্তন সম্ভব না। এবার আসি আমরা বাংলাদেশীরা কি করি। খাবার ব্যবসা আর হাসপাতাল ব্যবসা সমান তালে চালিয়ে যাই। আমরাও খাব আর হাসপাতাল এ যাব. সে সব অনেক পুরান কথা। একটা জিনিস লক্ষ্য করলাম ভেজাল বিরোধী অভিযান হচ্ছে সারা দেশে , নিশ্চয়ই ভালো কাজ। অনেক কারণে খাদ্য নষ্ট হয়। তারমধ্যে একটা কারণ হলো এসেমেট্রিক ইনফরমেশন। যেমন, যে বিক্রয় করবে সে জানেনা কে কিনবে ? কিন্তু সে তার দোকানে পসরা সাজিয়ে রেখে দিছে , দুই একদিন পর নষ্ট হয়ে গেল আর্থিক ক্ষতি হবে তাই সে ফেলে না দিয়ে নষ্ট খাবার আমাদের কে আবার খাওয়াচ্ছে। বেশি ভালো মানুষ হলে খালে ফেলে দিচ্ছে , কিন্তু দুইটাই ক্ষতি কম আর বেশি। তাহলে সমাধান কি ? অনেক সমাধান আছে। তার মধ্যে কয়েকটা ছোট সমাধান হতে পারে (চিটাগাং বা ক্সসবাজার) এর জন্য।

১. Google Playstore এ application ” Too Good To Go” এর মতো। ইটা মূলত আমি জানলাম ঐ কনফারেন্স এ Mette Lykke , CEO, “Too Good To Go” কাছ থেকে। আমি জানিনা বাংলাদেশে আছে কিনা। খুব ভাল একটা Application. যেমন আগামীকাল আপনার শহরে কোন কোন দোকানে খাবার মেয়াদ শেষ হবার বা নষ্ট হওয়ার আগে কম দামে পাবেন তার একটা টোটাল বর্ণনা পাবেন এবং যেকোনো অনলাইন মাধ্যমে আপনি পরিশোধ করতে পারবেন। কিন্তু সবমিলে সাফল্য নির্ভর করবে আমাদের সততার উপর। যদি এমন কোন Application Bangladesh এ থাকে তাইলে ভালো, না থাকলে প্রোগ্রামার বা সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার যদি চান চিন্তা করতে পারেন। কেউ চাইলে বিস্তারিত জানাতেও পারি।

২. “Food bank” এবং “Food Sharing Centre ” এটা অনেক পুরানো এবং সহজ কিন্তু দরকার সামাজিক এবং রাজনৈতিক সমর্থন। এটা অনেকটা এমন শহরের নির্দিষ্ট কিছু স্থানে এবং সময়ে নির্দিষ্ট দোকানের খাবারের জন্য বরাদ্দ থাকবে। মনিটরিং এবং মান কতৃপক্ষ নিশ্চিত করবে। এইখানে ফুড শেয়ারিং টি খুব জনপ্রিয় এবং অনেকটা সামাজিক দায়বদ্ধতার মত। মনে করেন আপনার আবাসিক এলাকায় একটা ফুড শেয়ারিং সেন্টার আছে , খাবার অনেক রান্না করার পর বা মেহমান না আসার কারণে অনেক খাবার বেঁচে গেল তা ফেলে দেয়ার চেয়ে ফুড শেয়ারিং সেন্টারে দিয়ে আসলে ভাল, গরিবরা ওখান থেকে খেতে পারে। এমনকি আমার এক বন্ধু আছে সে প্রতি সপ্তাহে তিন দিন মোবাইল application ব্যবহার করে অন্য বাসা থেকে খাবার সংগ্রহ করে আর ফুড শেয়ারিং সেন্টারে রেখে আসে অন্যরা খাবার জন্য। আর আমরা সারাদিন ফেইসবুক চালাই লম্বা লম্বা নীতি কথা বলি আর নিজেকে জাহির করি.

আমরা অনেকেই মনে মনে হাসতে পারি এবং আমাদের বাংলাদেশে হবে না বলতে পারি।………কিন্তু মনে রাখা উচিত Food is Medicine. কম খেলেও হবে না বেশি খেলেও সমস্যা। ……পরিশেষে বলি, Where there’s a will there’s a way তা না হলে there is Law … এবং খাদ্যের জন্য Idealist এবং Realist হই।

লেখক: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, নেদার‌ল্যান্ডে রিসার্চ ফেলো হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।। 

সর্বশেষ সংবাদ

বঙ্গোপসাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা বন্ধ, জেলেদের মাঝে হতাশা ও ক্ষোভ

রামুতে উপজেলা পরিষদের মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

মাদক প্রতিরোধে পরিকল্পিত কক্সবাজার আন্দোলন’র ১০ প্রস্তাব

মহিলাদের নিয়ে সাইফুল্লাহ হুজুরের যে ওয়াজ ভাইরাল

ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত

সাংস্কৃতিকধারার সাউন্ডবাংলা-পল্টনড্ডায় বক্তারা : প্রকৃত লেখকদের রাজনীতি দুর্নীতির বিরুদ্ধে

বান্দরবানে নিহত সেনাসদস্য নিপুন চাকমার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে পীযূষের শাস্তির দাবি

চকরিয়ার ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা

কক্সবাজার জেলা ছাত্রশিবিরের উদ্যোগে জিপিএ-৫প্রাপ্তসহ কৃতী সংবর্ধনা

মন্ত্রিসভায় রদবদল

কক্সবাজার লাইট হাউজ মাদরাসার অচলাবস্থা নিরসন চায় এলাকাবাসী

রামুতে বজ্রপাতে একই পরিবারের নিহত ২ : আহত ৩

বঙ্গোপসাগর থেকে ১লাখ ৪০ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার

প্রথম ইনিংস শেষ, এবার দ্বিতীয় ইনিংস খেলব

চলমান মামলা নিয়ে সংবাদ প্রকাশে বাধা নেই : আইনমন্ত্রী

কতুপালং শরনার্থী ক্যাম্পে বজ্রপাতে নিহত-১ : আহত-২

মুক্তিযোদ্ধাদের ন্যূনতম বয়স নিয়ে জারি করা পরিপত্র অবৈধ : হাইকোর্ট

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশপত্র মিলবে রোববার থেকে

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ