মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল পরিদর্শনে যাচ্ছেন কক্সবাজার উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের নেতৃবৃন্দ। উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের সোমবার ১৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জাতীয় দৈনিক আমাদের অর্থনীতি পত্রিকার সহ সম্পাদক সাদেক রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত জরুরী সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন-কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক কমিশনার ও পরিষদের উপদেষ্টা আবু জাফর ছিদ্দিকী। এডভোকেট শাহ আলমের সন্ঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথি সাবেক পৌরসভার কমিশনার আবু জাফর ছিদ্দিকী বলেন-কিছু মাস্তান প্রকৃতির ডাক্তারদের কারনে ৫ দিন যাবৎ জেলা সদরের একমাত্র সরকারি হাসপাতালে জনসাধারণের চিকিৎসা সেবা বন্ধ করে ইন্টার্ন চিকিৎসকগণ চরম অন্যায় করেছিল। অথচ চিকিৎসা সেবা পাওয়া সকল মানুষের মৌলিক অধিকার। তাছাড়া, চিকিৎসকদের ধর্মঘট করার কোন আইনগত অধিকার নেই। ধর্মঘট করে ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা মানুষের শুধু মৌলিক অধিকার হরণ করেননি, জেলাবাসীর সাথে চরম উদ্ধত্য দেখিয়েছে। তাদের এ স্পর্ধা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না। সভায় আরোও বক্তব্য রাখেন-জহির আলম কাজল, আবুল হোসেন, নুরুল ইসলাম ভূট্টৌ, হাফেজ আহমেদ, ছালেহ আহমদ, আবদুশ শুক্কুর, মোঃ হায়দার, জাহাঙ্গীর, মোঃ উল্লাহ, মোঃ ইব্রাহিম, হাফেজ জাকের হোসেন, মাওলানা আজিজুল হক ছিদ্দিকী, বোরহানউদ্দিন রাব্বানী, আবদুল আলীম, আবদুল মজিদ, মোঃ উল্লাহ, মোঃ আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।
সভায় কক্সবাজার উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজকর্মী রুহুল আমিন সিকদার বলেন-চিকিৎকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে চিকিৎসাসেবী মানুষ এখন অস্থির হয়ে পড়েছে। চিকিৎসকদের আচরণে মানুষ এখন তাদের প্রতি আতংকিত ও চরমভাবে ক্ষুদ্ধ। চিকিৎসকেরা স্বাস্থ্য সেবার পরিবর্তে মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করছে। রুহুল আমিন সিকদার আরো বলেন- সরকারি হাসপাতালকে সাধারণ মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে আমাদেরকে অবশ্যই গঠনমূলক ভুমিকা রাখতে হবে। গত ৫ এপ্রিল হতে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত চিকিৎসা সেবা বন্ধ রেখে ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছেন। যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
তাছাড়া ৫ দিনের হাসপাতাল বন্ধ থাকায় ঐসময়ে অনেক রোগী চিকিৎসা সেবা নাপেয়ে অনেকে মৃত্যুবরন এবং শত শত অসুস্থ মানুষ চিকিৎসা বন্ঞ্চিত হয়ে আরো গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সভায় সংগ্রাম পরিষদ নেতৃবৃন্দ ইন্টার্ন চিকিৎসকদের এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •