তামাকের বিষে ছেয়ে গেছে রামুর বিস্তীর্ণ এলাকা ,বিপন্ন হচ্ছে পরিবেশ

ফাইল ছবি

হাসান তারেক মুকিম,রামু :

রামুতে পুরো উপজেলা জুড়ে ছেয়ে গেছে তামাক চাষ। অব্যাহত তামাক বিষের কারনে চরম ভাবে বিপন্ন হচ্ছে এ এলাকার প্রাকৃতিক পরিবেশ। ককসবাজারে রামু উপজেলা সবুজ খাদ্য শস্যের ভান্ডার হিসাবে পরিচিতি থাকলেও তামাক চাষের কারনে এখন এ উপজেলায় নেমে এসেছে সবুজ খাদ্যদ্রব্যের আকাল।এক সময়ে গর্জনিয়া বাজার, রামু ফকিরা বাজার হতেই সিংহভাগ কাচাঁ তরিতরকারি সমগ্র ককসবাজারের বিভিন্ন হাট বাজারে সরবরাহ করা হতো, কিন্তু বর্তমানে ব্যাপক হারে তামাক চাষের কারনে নিত্য প্রয়োজনীয় শাক সবজি সূদুর চট্রগ্রাম শহরের আশ পাশ এলাকা থেকে এখানকার ব্যবসায়ীরা এনে দ্বিগুন দামে বিক্রি করছে। এতে সাধারন মানুষের খাদ্য তালিকায় সবুজ শাক সবজির অভাবতো দেখা দিচ্ছেই, পাশাপাশি তারা ভিটামিনের তথা পুষ্টিহীনতার কারনে নানান রোগে ভুগছে। বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে উপজেলার গর্জনিয়া,কচ্ছপিয়া,কাউয়ারখোপ,ফঁেতখারকুল রাজারকুল,খুনিয়াপালং ইউনিয়নে অপ্রতিরোধ্য তামাক চাষের ফলে,এ এলাকায় মাটির উর্বরতা শক্তি কমে যাচ্ছে এতে করে মানুষের জীবন ধারনের অপরিহার্য্য খাদ্য শস্যের উৎপাদনের মাত্রা দিন দিন কমে আসছে। দিন দিন তামাক চাষের প্রসারতা বৃদ্ধি পাওয়ায় এখানকার শত শত একর জমিতে তামাকের বিষ ছড়িয়ে পড়েছে। এক শ্রেনীর টোব্যাকো কোম্পানীর লোভের ফাঁদে পড়ে কৃষকরা তামাক চাষে জড়িয়ে পড়ছে। এসব টোব্যাকো কোম্পানী কৃষকদের স্বল্প সুদে ঋনসহ নানা ভাবে উৎসাহিত করে আসছে। যার ফলে অতিতে কৃষকরা যেখানে সোনালী ধান ও সবুজ ফসলাদী ফলাত, সেখানে কৃষকরা এখন অতিউৎসাহী হয়ে তামাক চাষ করছে। অপরদিকে চুল্লি তৈরী করে তামাক পাতা শুকানোর জন্য পুড়ানো হচ্ছে শত শত মন কাঠ। এতে করে উজাড় হচ্ছে বনাঞ্চল, পাশাপাশি তামাক পুড়ানো দুষিত ধোয়ায় অ´িজেনের মাত্রা কমে পৃথিবীতে বৃদ্ধি পাচেছ নাইট্রোজেনের পরিমান ।যার ফলে প্রতিনিয়ত হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য ।এছাড়া তামাক পুড়ানোর বিষক্রিয়ার ফলে মানুষ স্বর্দি কাশি,এজমা আলসার ও ক্যান্সারসহ নানাবিদ দুরারোজ্ঞ ব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছে।

বর্তমান সরকার দেশজুড়ে তামাক চাষ বন্ধ ও তামাকের ভয়াবহতা সম্পর্কে গনসচেতনামুলক প্রচার করে আসছে,সেখানে রামু উপজেলায় চলছে অব্যাহত ভাবে তামাক চাষ। সরকারী ও বেসরকারীভাবে প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার্থে কৃষকদের সবুজ ফসলাদী চাষে উদ্বুদ্ধ ও সহযোগীতা করে তামাক চাষ বন্ধ করতে হবে। এতে করে আমাদের বনাঞ্চল রক্ষা পাবে, পাশাপাশি চরমভাবে স্বাস্থ্য ঝুঁিক ও পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পাবে রামুর লক্ষ লক্ষ মানুষ।

সর্বশেষ সংবাদ

‘ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরে বাধা দিচ্ছেন, প্রাণহানির দায় আপনাদের’

স্থানীয় সরকারের সিনিয়র সচিব গোলাম ফারুক দু’দিনের সফরে কক্সবাজারে

এবার ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘ফেনি’

কুতুবদিয়ায় ২ জনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

শিক্ষকদের ওপর বেশি কর্তৃত্ব ফলান অশিক্ষিত ব্যবস্থাপনা কমিটি: শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল

ভোটের মাধ্যমে ‘পুনর্গঠন’ চায় তৃণমূল বিএনপি

লামায় কমিউনিটি ক্লিনিক সংস্কার কাজে অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

নাইক্ষ্যংছড়ি কলেজের প্রভাষক আবদুস সাত্তার আর নেই : আসরের পর জানাজা

জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালনে কক্সবাজারে ব্যাপক প্রস্তুতি

নির্বাচন কমিশন সচিবের সংগে মতবিনিময় করলেন ঢাকাস্থ রামু সমিতি

বঙ্গবন্ধু বাংলার সাধারণ মানুষের ভালোবাসার কথা ভাবতেন : চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার

চট্টগ্রামে জব্বারের বলীখেলায় কুমিল্লার শাহজালাল চ্যাম্পিয়ন

বাংলাদেশ কমিউনিটি মেটস প্রবাসীদের ১লা বৈশাখ উদযাপন

চকরিয়ায় পাওনা টাকা দাবির জেরে বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর, আহত ৬

ইউজিপি-থ্রি প্রকল্প পরিচালকের কলাতলী – মেরিন ড্রাইভ চলমান কাজ পরিদর্শন

দারুল আরক্বম তাহফীযুল কুরআন মাদরাসার সবিনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

আলোকিত উখিয়ায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

আদালতের আদেশনামা গোপন করে শপথ নিয়েছে জমিরী- রফিক উদ্দীন

জেরায় বিমর্ষ সোনাগাজী থানার সেই ওসি মোয়াজ্জেম

পেকুয়ায় শরতঘোনা পয়েন্টে বেড়িবাঁধ বিলীন