বাংলাদেশে ভ্রমণ সতর্কতা জারি যুক্তরাষ্ট্রের

সিবিএন ডেস্ক:
বাংলাদেশে অবস্থানরত মার্কিন নাগরিকদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে ভ্রমণরতদের বাড়তি নিরাপত্তা গ্রহণ করা ও সতর্ক থাকার আহ্বান জানায় তারা। একইসঙ্গে ঢাকা ও দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকা ভ্রমণের বিষয় পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানানো হয়। এক থেকে পাঁচ সতর্কমাত্রার মধ্যে বাংলাদেশের ব্যাপারে এক থেকে লেভেল টুতে উন্নীত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। আর ঢাকা ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকায় এর মাত্রা ৩।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানায়, বাংলাদেশে অপরাধ ও সন্ত্রাস বেড়ে যাওয়ায় এই সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কিছু জায়গায় ঝুঁকি অনেক বেড়ে গেছে।’ ‘রিকন্সিডার ট্রাভেল টু: ঢাকা’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে বলে জানানো হয়। পররাষ্ট্র দফতর জানায়, চট্টগ্রাম হিলট্র্যাকসহ দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় সন্ত্রাস, অপহরণ বেড়ে যাওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ঢাকায় লেভেল থ্রি মাত্রার সতর্কতা জারির বিষয়ে পররাষ্ট্র দফতর জানায়, রাজধানীতে অপরাধের হারও অনেক বেশি। বিশেষ করে রাতে এটি বেশি বৃদ্ধি পায়। শহরের অপরাধগুলোর মধ্যে বিভিন্ন চক্র জড়িত, চুরি, ডাকাতি, গাড়ি ছিনতাই, হামলা, ধর্ষণ অন্যতম।

একইসঙ্গে খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবানের মতো পাহাড়ি এলাকাও বিপজ্জনক। সেখানে অপহরণসহ অন্যান্য অপরাধের ঘটনা ঘটছে।

ট্রাভেল অ্যাডভাইজরিতে বলা হয়, রাজনৈতিক আন্দোলন, অবরোধ ও সহিংস সংঘাত ঘটেছে এবং ঘটতেই থাকবে। চট্টগ্রাম হিল ট্র্যাকে যেতে হলে আপনার বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়ে যাবেন।
পররাষ্ট্র দফতর জানায়, সহিংস অপরাধ, ডাকাতি, হামলা, ধর্ষণ অনেক বেড়ে গেছে। সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো বাংলাদেশে হামলার পরিকল্পনা করছে। বলা হয়, তারা যে কোনও সময় পর্যটনপ্রিয় স্থান, বাস-ট্রেন স্টেশন, শপিংমল, রেস্টুরেন্ট, উপাসনালয় কিংবা সরকারি দফতরে হামলা চালাতে পারে।

ট্রাভেল অ্যাডভাইজরিতে বলা হয়, শহুরে এলাকায় অনেক পুলিশ থাকা সত্ত্বেও সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাবনা আছে।

সর্বশেষ সংবাদ

পাঁচ মিনিটের জন্য স্কুল মাঠে হেলিকপ্টার, উৎসুক জনতার ভিড়

রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট তৈরীতে সহায়তাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে : ডিআইজি

আ’লীগের প্রতিনিধি সভায় সফল করার আহবান জেলা ছাত্রলীগের

ভারুয়াখালীতে পরকিয়ার জেরে স্ত্রীকে হত্যা

কাজ না করেই বিল নেয়ার দিন শেষ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাদক ও ইভটিজিংয়ের বিরুদ্ধে টেকনাফে কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভা

পাসপোর্ট করতে গিয়ে কথিত পিতাসহ রোহিঙ্গা নারী আটক

ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি: প্রধানমন্ত্রী

যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ রিমান্ডে

চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ এএসআই নির্বাচিত হলেন রাশেদ খাঁন

নারী ও কন্যা শিশুর প্রতি সহিংসতারোধে যুব সমাবেশ

বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন–১৯৯১ ও কক্সবাজারের প্রেক্ষাপট

সময়ের সর্বোত্তম কাজ হচ্ছে বৃক্ষরোপন- জেলা প্রশাসক

কোস্টগার্ডের বিরুদ্ধে বোট মালিক সমিতির বিক্ষোভ 

ইসলামপুরের হাফেজ বেদারের ইন্তেকাল

পেকুয়ায় পুলিশের অভিযানে প্রতারণা মামলার আসামী গ্রেফতার

বদরখালী জেনারেল হাসপাতালে দুর্বৃত্তের হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট

১১তম গ্রেডের দাবি: লোহাগাড়ায় প্রাথমিক শিক্ষকদের মানববন্ধন

খুটাখালী পুরাতন ইউপি ভবন যেন ধ্বংসস্তূপ!

বালক কক্সবাজার পৌরসভা ও বালিকা’য় মহেশখালী ফাইনালে