সিবিএন ডেস্ক:
আসন্ন হজ মৌসুমে বাংলাদেশি হজযাত্রীদের লাগেজ নিজে বহন করতে হবে না। সৌদি কর্তৃপক্ষ প্রত্যেক হজযাত্রীর লাগেজ মক্কা-মদিনার সংশ্লিষ্ট বাড়ি ও হোটেলে পৌঁছে দেবে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করার সময়ই হাজিদের পাসপোর্ট ও লাগেজে বাড়ি-হোটেলের ঠিকানা অনুসারে লাল, সবুজ, হলুদ রংয়ের স্টিকার লাগিয়ে দেয়া হবে। বিমানবন্দরে নামার পর হজযাত্রীরা তাদের পাসপোর্টে দেয়া স্টিকারের রংয়ের বাসে আরোহন করে বাড়ি কিংবা হোটেলে নির্বিঘ্নে পৌঁছে যাবেন। আগের মতো তাকে হন্য হয়ে লাগেজ খুঁজে বেড়াতে হবে না। তার লাগেজও নির্ধারিত গন্তব্যে পৌঁছে যাবে। শাহজালাল বিমানবন্দরে সরবরাহ করা টোকেন জমা দিয়ে হজযাত্রীরা স্ব স্ব লাগেজ বুঝে নেবেন।

শুক্রবার সকালে সচিবালয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে ধর্ম সচিব আনিছুর রহমান এসব তথ্য জানান।

সচিব বলেন, সৌদি কর্তৃপক্ষ শাহজালাল বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করতে রাজি হওয়ার পাশাপাশি সৌদি আরবের গন্তব্যে নিজ দায়িত্বে লাগেজ পৌঁছে দিতে সম্মত হয়েছে। এর ফলে লাগেজ খোঁয়া যাওয়া কিংবা জেদ্দা বিমানবন্দরে লাগেজ খুঁজে না পাওয়ার ভোগান্তি থেকে হজযাত্রীরা রক্ষা পাবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ৭৯৮ ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২০ হাজার হজযাত্রীর কোটা রয়েছে। তাদের মধ্যে গত ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে গমনেচ্ছু এক লাখেরও বেশি যাত্রী নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন। এবার মোট হজযাত্রীর শতকরা ৫০ ভাগ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও বাকি ৫০ ভাগ সৌদি এয়ারলাইন্সে করে যাবেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •