সংবাদদাতাঃ
জাতীয় শ্রমিক লীগ কক্সবাজার জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম মুকুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ৯ এপ্রিল ঢাকা মতিঝিল থানা পুলিশের হাতে তিনি গ্রেফতার হন। পরে কুতুবদিয়া থানায় তাকে হস্তান্তর করে। ১১ এপ্রিল ভোরে মুকুলের স্বীকারোক্তি মতে কুতুবদিয়ার লেমশিখালী ও বড়ঘোপ এলাকা থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, ৪টি বন্ধু ও ৪টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে।
কুতুবদিয়া থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌস সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মুকুলের বিরুদ্ধে ১০/১২ টি মামলা রয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন আত্মগোপনে ছিলেন। ঢাকা মতিঝিল থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান কুতুবদিয়া থানার ওসি।
এদিকে, অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনা সম্পূর্ণ সাজানো ও পরিকল্পিত বলে দাবি করেছে মনোয়ারুল ইসলাম মুকুলের পরিবার।
তাদের দাবী, মুকুলের বিরুদ্ধে কোনো মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল না। সকল মামলায় তিনি উচ্চ আদালতের জামিনে আছেন। তারপরও নতুন একটি সাজানো মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানো হয়েছে তাকে।
কুতুবদিয়া থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌসের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালত ও দুর্নীতি দমন কমিশনে মামলা করেন শ্রমিক লীগ নেতা মনোয়ারুল ইসলাম মুকুল। তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে বলে পরিবারের দাবি। নানামুখী ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা মামলায় হয়রানি থেকে বাঁচতে প্রশাসনের কাছে আবেদন জানিয়েছে মুকুলের পরিবারের সদস্যরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •