‘আমিই নুসরাত’

প্রকাশ: ১১ এপ্রিল, ২০১৯ ১১:৪০ , আপডেট: ১১ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৩২

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


ঝিনুক জোবাইদা :
**************

অতঃপর আমার মৃত্যু হলো।
আমি?
আমাকে চেনা যায় খুব সহজেই –
আমি তোমার কন্যা,
তোমার বুকের উমে বড় হয়েছি,
আমি তোমার ভগ্নী,
তোমার সাথে কানামাছি খেলি,
আমি তোমার প্রেমিকা,
তোমায় নিয়ে স্বপ্ন দেখি।
আমি তোমার শিষ্য , তোমায় শ্রদ্ধা করি।

চেনা যায়?
শাদা রঙের ব্যান্ডেজে মোড়ানো, ঝলসে যাওয়া দেহ,
সবচে ঝলসে যাওয়া আমার হৃদয়,
আমার ভেঙে যাওয়া স্বপ্ন!!
যায়?
চিনতে পারো?

আমি অভিশাপ দিলাম তোমাদের,
আমি তোমাদের মাংস খোবলে খেতে চেয়েছিলাম,
আমি তোমাদের শিশ্ন ছিঁড়ে শকুনের মুখে দিতে চেয়েছিলাম,
আকাশ পাতাল ব্যাপী
একটা চিৎকার দিতে চেয়েছিলাম।

কিন্তু না, আমি মারা গেলাম।
আমার রেখে যাওয়া জামা কাপড়, আমার কলম,
আমার বইপত্র, আমার এযাবৎকালের স্মৃতি আমার বাবা মাকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাই করবে,
তোমাদের কিছুই হবেনা, একদিন আকাশে নক্ষত্রপতনের মতো মিশে যাবো।
তোমরা নিউজ করার জন্য নতুন ইস্যু পাবে।
আবার একজন ধর্ষকের মুক্তি কামনায় মিছিলে যাবে।

আমার অভিশাপের মালা পরে
তুমি আবার ধর্ষক হয়ে উঠবে,
তুমি এভাবেই
নিয়ত ধর্ষক হয়ে উঠবে।

লেখক : ঝিনুক জোবাইদা , কবি ,প্রাবন্ধিক, শিক্ষক ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •