আবদুল মজিদ,চকরিয়া:

চকরিয়ায় ভূমি সেবা সপ্তাহ-১৯ ও কৃষি খাস ভূমি বন্দোবস্তপ্রাপ্ত পরিবার সমূহের মধ্যে দলিল ও নামজারী খতিয়ান হস্তান্তর অনুষ্ঠান ১০ এপ্রিল বিকাল সাড়ে ৩ টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন মোহনায় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) খোন্দকার মোঃ ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত এর সঞ্চালনায় অনুষ্টিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, ইতিপূর্বে কোনাখালী ইউনিয়নসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় ভূমিহীন পরিবারের মাঝে খাসজমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে এবং তাদের হাতে খতিয়ান সৃজন দেওয়াসহ জমির সীমানা খুঠি দিয়ে স্ব স্ব দখল বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাদের নিজেদের নামে বর্তমান সরকারের পক্ষ থেকে এসব জমি পেয়ে তারা এখন অনেক খুশি। যাদেরকে কৃষি খাস ভূমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তাদেরকে অতিশীঘ্রই সরকারিভাবে ঘরও নির্মাণ করে দেওয়া হবে। তিনি বলেন, প্রত্যেক ইউনিয়নে যেসব পরিবার দরিদ্র পরিবার খাস জমি দখলে নিয়ে বসবাস করছেন তাদেরকেও সরকারিভাবে বন্দোবস্তু খতিয়ান সৃজন করে দিয়ে এধরণের সুযোগ-সুবিধার আওতায় আনা হবে। ইউএনও বলেন, আমরা ভূমির কাগজপত্রকে কঠিন ভাবি, কিন্তু জানতে চাইলে সহজ। তাই জনগনকে আরো বেশি সচেতন করতে হবে। জনগন সচেতন হলে, দালালদের না ধরে নিজেদের কাজ নিজেরাই সহজে করতে পারেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, চকরিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ একেএম গিয়াস উদ্দিন, চকরিয়া থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আতিক উল্লাহ, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা, পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম, উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির সাবেক চেয়ারম্যান সেলিম উল্লাহ এমএ, বিএমচর ইউপি চেয়ারম্যান এসএম জাহাঙ্গীর আলম, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল মজিদ, চকরিয়া আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট লুৎফুল কবির, বীরমুক্তিযোদ্ধা ফরিদুল আলম সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার ব্যক্তিবর্গ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার কথা ছিল কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ আশরাফুল আফসার। অনুষ্ঠানে ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে ভূমি সেবা নিয়ে বিভিন্ন তথ্যাদি তুলে ধরেন এবং বিএমচর ইউনিয়নের কৃষি খাস ভূমি বন্দোবস্তপ্রাপ্ত ৩৩টি পরিবারের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে দলিল ও নামজারী খতিয়ান হস্তান্তর করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •