সিবিএন ডেস্ক :

রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজে ১০ এপ্রিল ২০১৯ প্রথমবারের মত আন্ত:হাউজ বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ মাঈন উল্লাহ চৌধুরী, এডব্লিউসি,পিএসসি জিওসি ১০ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার কক্সবাজার এরিয়া ও বিদ্যালয় সভাপতি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ আসাদুল্লাহ মিনহাজুল আলম,এনডিইউ,পিএসসি এবং উচ্চ পদস্থ সামরিক, অসামরিক ব্যক্তিবর্গ।

রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ৪টি হাউজ যথাক্রমে- লে. মুশফিক, লে. সামাদ, লে. আহসান ও ক্যাপ্টেন সেতারা বেগম হাউজের মধ্যে ৮ বিষয়ে ৩৬টি বিভাগে প্রতিযোগিরা অংশগ্রহণ করে। বিভিন্ন বিষয়ে প্রতিযোগিতায় ক্যাপ্টেন সেতারা হাউজ বিজয়ী হাউজ নির্বাচিত হয়, রানার আপ হয় লে. মুশফিক হাউজ।

বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশে শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া নৈপুন্য প্রদর্শনীর পাশাপাশি শিক্ষক ও অভিভাবকদের অংশগ্রহণ উক্ত প্রতিযোগিতায় নতুন মাত্রা যোগ করে। প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত উল্লেখযোগ্য ইভেন্ট ছিল- ২০০ মি. দৌড়, ৪০০ মি. রিলে দৌড়, মিউজিক্যাল চেয়ার, ইত্যাদি। মাননীয় প্রধান অতিথির সামনে প্রদর্শিত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ডিসপ্লে ছিল উক্ত ক্রীড়া প্রতিযোগিতার অন্যতম আকর্ষণ। প্রধান অতিথি জাতি গঠনে শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধুলার গুরুত্ব প্রদান করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশ প্রদান করেন।

প্রতিযোগী ও আগত অতিথিদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি বলেন- শিক্ষার্থীর সামর্থ ও শক্তিগুলোর স্বাভাবিক ও সুষম বিকাশই শিক্ষার লক্ষ্য। শিক্ষার্থীর অন্তনিহিত এবং তার পরিপূণ বিকাশ সাধনই বিদ্যালয়ের প্রধান লক্ষ্য হিসেবে আমরা ঠিক করেছি। মাত্র দু’টি পন্থায় সফল হওয়া যায়। একটি হচ্ছে সঠিক লক্ষ্য নিধারন করা , ঠিক যা তুমি করতে চাও । আর দ্বিতীয়টি হচ্ছে সে লক্ষ্যে কাজ করে যাওয়া । তাই অনুকরণ নয় , অনুসরণ নয় , নিজেকে খোঁজ , নিজেকে জান।

দ্রুতই এ বিদ্যালয় কক্সবাজার এলাকায় শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •