আবুল কালাম, চট্রগ্রাম:
চট্টগ্রামের কোতোয়ালী জুনের তামাকুমন্ডি লেনে এ চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ) এর স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

রবিবার (৭ এপ্রিল) দুপুর ১২ টার দিকে এ অভিযান শুরু হয়।

এসময় চলাচলের রাস্তা দখল করে করা অসংখ্য দোকানের বর্ধিত অংশ অপসারণ করে চলচলের রাস্তা উদ্ধারের পাশাপাশি প্রতিটি দোকানে যথাযথ অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা আছে কিনা তা যাচাই করেন সিডিএ কর্মকর্তারা। পাশাপাশি নকশা অনুযায়ী মার্কেটের ভেতর প্রসস্ত সিঁড়ি আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখেন অভিযান পরিচালনাকারী টিমের সদস্যরা।

উচ্ছেদ অভিযান শেষে স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল আলম চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবেই এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। এরা আগে নকশা বহির্ভূত অংশগুলো অপসারণের জন্য এর আগে নোটিশ দিয়েছিলাম। তারা নিজেরা ভাঙ্গেনি তাই আজ আমরা উচ্ছেদে নামলাম।

তিনি বলেন, নকশা বহির্ভূত অংশ অপসারণের পাশাপাশি আমরা মার্কেটের অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থাও যাচাই করেছি। সবগুলোতেই কিছুনা কিছু সমস্যা রয়েছে। আমরা দ্রুত এসব ঠিক করার তাগিদ দিয়েছি।

কোন পূর্ব সতর্কতা ছাড়া সময় না দিয়ে অভিযান চালানো হয়েছে মর্মে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে সাইফুল আলম বলেন, একাধিক বার নোটিশ দেয়া হয়েছে। কাল রাতেও সতর্ক করা হয়েছে। এরপর আজ সকালে অভিযান শুরুর আগে ব্যবসায়ীদের আধাঘণ্টা সময় দেয়া হয়েছে। পরে তারা আরও আধাঘন্টা সময় চেয়েছে, সেটাও দেয়া হয়েছে।

অভিযানের বিষয়ে তামাকুমন্ডি লেন ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শামসুল আলম বলেন, নকশা বহির্ভূত স্থাপনা উচ্ছেদে সিডিএ অভিযান পরিচালনা করেছে। আমরা তাদের সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি। আজ তারা উচ্ছেদ করেছেন পাশাপাশি কিছু ব্যাপারে সতর্ক করে হুঁশিয়ারি দিয়ে গেছেন। অভিযানের ব্যাপারে আমরা (ব্যবসায়ী) সন্তুষ্ট।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •