আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :

কাপ্তাই হ্রদে সাধারন জেলেদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়কালে আঞ্চলিক সশস্ত্র দল ইউপিডিএফের সাথে সেনাবাহিনীর বন্দুকযুদ্ধ সংঘঠিত হয়েছে। ৬ এপ্রিল শনিবার রাত সাড়ে ৮টা হতে ৯টা পর্যন্ত এই বন্দুকযুদ্ধ স্থায়ী হয়। লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ রঞ্জন কুমার সামন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লংগদুর কাট্টলী এলাকায় কাপ্তাই হ্রদে ইউপিডিএফের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা দীর্ঘদিন ধরে ব্যাপক হারে চাঁদাবাজি করে আসছিল। জানা যায়, ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের ওই সশস্ত্র দল দীর্ঘদিন ধরে উক্ত এলাকা ব্যবহার করে তাদের সশস্ত্র কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল এবং আজ সন্ত্রাসীদের একটি সশস্ত্র দল নৌকাযোগে উক্ত পথে আসার গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পানি পথে সন্ত্রাসীদের গমনাগমন রাস্তায় ফাঁদ পাতে সেনাবাহিনীর অভিযান দলটি। এসময় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের সাথে সেনাবাহিনীর গুলি বিনিময় হয়।

এসময় সন্ত্রাসীরা নৌকা থেকে ঝাঁপিয়ে পালাবার চেষ্টা করলেও ঘটনাস্থল থেকে ১টি এসএমসি ও ৫টি বন্দুক এবং একজন আহতসহ মোট তিনজন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো- পূর্ণদেব চাকমা(৩০), মঙ্গল কান্তি চাকমা(৩৫) ও নরেশ চাকমা(১৯)। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ এবং তল্লাশী কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা ১৮ মার্চের হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •