প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

কক্সবাজারে মহেশখালীতে ২ এপ্রিল পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া ও তার লালিত সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মম নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক সালামত উল্লাহ দায়ের করা এজাহার মামলা হিসাবে রুজু করা ও অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে মহেশখালী প্রেসক্লাব মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের কর্মসূচি পালন করে। প্রতিবাদ সমাবেশে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিভিন্ন সমাজিক,রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ অংশ গ্রহন করে।

৫ এপ্রিল শুক্রবার সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে বক্তারা বলেন, একজন সাংবাদিক ও জন প্রতিনিধিকে জন সম্মুখে নির্মম প্রহার,অমানুষিক নির্যাতন করে পঙ্গু করার পর ও থানায় মামলা না নিয়ে পরবর্তিতে প্রতিবাদকারী সাংবাদিকদের হাত কেটে নেওয়ার হুমকি দেওয়ায় মানববন্ধনে বক্তারা বলেন,হাত কেটে নিলে ও রাজাকারের পুত্র নব্য আওয়ামীলীগার পৌর মেয়র মকছুদ মিয়ার কাছে মাথানত নয় সাংবাদিক সমাজ। প্রয়োজনে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেন।পৌর মেয়র তার নিজের অপকর্ম ঢাকতে এলাকা ভিত্তিক রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে বিভিন্ন মানুষ দিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। পৌর কাউন্সিলার ও পৌর আওয়ামীলীগের নামে ৪ এপ্রিল সাংবাদিক,সম্পাদক ও পত্রিকার বিরুদ্ধে ডাকা প্রতিবাদ সমাবেশে পুটিবিলার লোকদিয়ে পারিবারিক কলহ তৈরী করতে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করে। এতেই প্রমাণিত হয় মেয়র এর পরিবারের কোন লোক বা নিজে উপস্থিত না হয়ে সতিনের ছেলে দিয়ে সাপ ধরার চেষ্টা চালায় রাজাকারের পুত্র মেয়র মকছুদ।

এদিকে মহেশখালী থানায় ৩দিন অতিবাহিত হলে ও মামলা নেয়নি ঘটনায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে জড়িত মহেশখালী পৌর মেয়র মকছুদ মিয়ার নাম এজাহারে উল্লেখ থাকায়।সাংবাদিকগন মহেশখালী প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত প্রতিবাদ ও মানববন্ধন থেকে অতি সত্তর আইনের শাসন ও গণতন্ত্রের অধিকার হিসাবে নির্যাতিত সাংবাদিক সালামত উল্লাহর স্ত্রী জুলেখা আক্তারের দায়ের করা এজাহার মুলে মামলা গ্রহনের দাবি জানান।প্রেসক্লাব সভাপতি মাহাবুব রোকনের সভাপতিত্বে সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম রমজান আলীর পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহেশখালী পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র শ্রী পূর্ণ চন্দ্র দে,সেক্টর কমাান্ডার ফোরাম মহেশখালী উপজেলার সভাপতি সিরাজ মিয়া,নির্যাতিত সাংবাদিক সালামত উল্লাহর স্ত্রী জুলেখা আক্তার,বয়োবৃদ্ধ খালা রোশন জামান,ভাগনি সেফা আক্তার,মুন্নি আক্তার,মহেশখালী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জয়নাল আবেদীন,সাবেক সভাপতি হারুনর রশিদ,সহ-সভাপতি ছৈয়দ মোস্তফা আলী,জাতীয় দৈনিক আমাদের সময়ের মহেশখালী প্রতিনিধি ও মহেশখালী উপজেলা জাসদের আহ্বায়ক আশরাফুল করিম সিকদার নোমান, মহেশখালী প্রেসক্লাবের অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ তারেক উপস্থিত ছিলেন আমার দেশের মহেশখালী প্রতিনিধি মকছুদুর রহমান,দৈনিক রূপসী গ্রামের মহেশখালী প্রতিনিধি সিরাজুল হক সিরাজ,সমকালের মহেশখালী প্রতিনিধি শাহাব উদ্দিন,ভোরের কাগজের মহেশখালী প্রতিনিধি বশির উল্লাহ,দৈনিক সৈকত এর মহেশখালী প্রতিনিধি আব্দু রশিদ,ভোরের ডাক এর মহেশখালী প্রতিনিধি নুরুল কাদের,দৈনিক বাকঁখালীর ষ্টাফ-রিপোটার জিকির উল্লাহ জিকু,সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল বশর পারভেজ স্থানীয় সমাজ কর্মী শামশুল আলম,ডাঃ মাহাবুব আলম।

নির্যাতিত সাংবাদিক সালামত উল্লাহ বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। মানববন্ধন শেষে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা ও মহেশখালী কুতুবদিয়ার সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক,মহেশখালী প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় কালে সাংবাদিকরা মহেশখালীর পরিবেশ শান্ত রাখতে রাজাকারের পুত্র পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া কতৃর্ক নির্যাতনের শিকার সালামত উল্লাহ ঘটনা প্রকৃত অপরাধীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাংবাদিক সালামত উল্লাহ যে স্থানে বিভিন্ন সময় অবস্থান করত সেই তপন সরকারের দোকান বন্ধ করে দেওয়া দোকান খুলে দিতে সংসদ সদস্যের প্রতি আহ্বান জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •