রাহাতুল ইসলাম রিদু

তোমাদের ছাত্রাবাসে অথবা কলাভবনে,
একটু ঠাঁই দাও আমায়।
আমি রাত্রিযাপন করবো।
যেন প্রভাতফেরীর গণমানুষের ভীড়ে,
আমিও অংশীদারত্ব পাই।
যেন শহীদের গণকবরে আমি ঠাঁই পাই।
যেন শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য,
আমার জন্যেও অর্পিত হয়।

তোমার ক্যাম্পাসে বা আঙ্গিনায়,
একটু ঠাঁই দাও আমায়।
আমি মধ্যোরাতে গৃহে ঠিকই ফিরবো।
মোম হাতে কিছুটা মুহূর্ত শুধু মার্চের সেই
কালোরাত্রি স্মরণ করবো।
কিছুটা সময় শুধু আশ্রয় দাও।

তোমার সেই বিশ তলা দালান কোটায়,
আমাকে একটি দিন নতুবা একটি রাত থাকতে দাও।
আমি সেই রানাপ্লাজায় নিহতে লাশের শোকঘ্রাণ,
আর বেঁচে ফেরা মানুষের আর্তনাদ অনুভব করবো।
আমি সেই চকবাজার,গুলশান,বনানী ও রাজধানীসহ
সকল স্থানে আগুনে পোড়া নিহত ও
জিন্দা লাশের আর্তনাদ অনুভব করবো।
কিছুটা সময় শুধু আশ্রয় দাও।

শাপলা চত্বরের ছাত্র আন্দোলন মিছিলে,
আমাকেও ঘেঁষতে দাও।
আমিও “নিরাপদ সড়ক চাইবো”।
বাঁধার সম্মুখে এগিয়ে যাবো।আর,
আমি সাদা ড্রেসে লালবর্ণ ধারণ করবো।
আমি পতাকা বুকে সালাম জানিয়ে শহীদ হবো।আর ঘোষণা দিবো,
অন্তত এইবার যেন বাংলা,
অবশ্যই স্বাধীন ও সার্বভৌম হয়।

কিছুই যখন চাওয়ার থাকবেনা,
তখনই আমায় তোমাদেরঐ খাটিয়ায়,
লাল-সবুজের পতাকা মুড়িয়ে,
সালাম-রফিক-সফিক-বরকতের কাতারে,
আমায় নির্বাসন দিও।
যেন মরেও শান্তি পাই

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •