সোয়েব সাঈদ:

রামুতে মশাল এর উদ্যোগে উপজেলার বিভিন্ন মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অস্বচ্ছল মেধাবি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত শিক্ষার্থী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল মনছুর বলেছেন, তারাই সর্বোত্তম, যারা শিক্ষা প্রসারে কাজ করে। শিক্ষার্থীদের সংগঠনের সদস্য হয়ে শিক্ষার জন্য কাজ করা আরো বেশী গর্বের। সুশিক্ষিত জাতি গঠনের মাধ্যমে দেশকে মাদক, সন্ত্রাস মুক্ত করে উন্নয়নশীল ও শান্তিময় করা সম্ভব। তিনি অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের কল্যাণে এগিয়ে আসায় শিক্ষামুলক সংগঠন মশাল এর সকল সদস্যদের ধন্যবাদ জানান।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বেলা ১২টায় রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরী মিলনায়তনে আয়োজিত বৃত্তি প্রদান ও শিক্ষার্থী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন, মশাল এর সভাপতি পাভেল শর্মা নয়ন।

এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মো. সালাহ উদ্দিন, বাঁকখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কিশোর বড়–য়া, রামু ল্যাবরেটরি স্কুলের প্রধান শিক্ষক আদহাম বিন ইব্রাহিম ও সাংবাদিক সোয়েব সাঈদ।

আনরাফির সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, মশাল এর সদস্য সচিব তাসনিম মাহমুদ ইনান ও সদস্য অতন্দ্রিলা রিয়া। এতে মশাল এর সদস্যদের মধ্যে আকাশ দে, সুরাইম আলম, মো. জাবেদ, মোসাদ্দেক আদিল, মুর্শেদ আলী, আশিক মাহমুদ রায়হান, লাবিব, কুইন, মাহিন, জুবেরী উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে উপজেলার ৮টি মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৭ জন অস্বচ্ছল মেধাবি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়। অতিথিবৃন্দ বৃত্তিপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ১ রিম খাতা, ১ ডজন কলম, ১ ডজন পেন্সিল, ৩ টি রাবার, ৩ টি কাটার, ১ টি জ্যামিতি বক্স, ২ টি স্কেল তুলে দেন। এছাড়া বৃত্তিপ্রাপ্তদের ২০১৯ সালে শিক্ষার যাবতীয় খরচ মশাল বহন করবে।

বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলো, মেরংলোয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল ও নাজিফা তৈয়ব, হালদারকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আতিক উল্লাহ ও সাইফুল ইসলাম, উত্তর ফতেখাঁরকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আরাফাত উদ্দিন ও ইসরাত জাহান, রামু খিজারী বার্মিজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আদিত্য বড়ুয়া, অর্পি বড়ুয়া ও মোহাম্মদ সানি, রামু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তমাল ও শ্রীপর্ণা বড়ুয়া, বাঁলখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের, তাকরিমুর রশিদ ও তন্ময়, জারাইলতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাশেদুল ইসলাম ও তারেকা সুলতানা, কেন্দ্রীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ইকা ইয়াসমিন ও জান্নাতুল নাঈমা।

মশাল এর সভাপতি পাভেল শর্মা নয়ন জানান, সুশিক্ষিত জাতি গঠনের মাধ্যমে দেশের কাংখিত অগ্রগতি সম্ভব। এ লক্ষ্যে শিক্ষার উন্নয়নে মশাল কাজ করে যাচ্ছে। ইতিপূর্বে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিরুদ্ধে এ সংগঠন বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছে। ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ, অস্বচ্ছল মেধাবি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে এ সংগঠন শিক্ষাবান্ধব কর্মকান্ড পালন করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে রামুতে শিশুশ্রম বন্ধে মশাল কাজ করবে। এসব কর্মকান্ডে তিনি প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি সহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য সম্প্রতি মশাল এর উদ্যোগে রামু উপজেলার ৫টি মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •