অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর সদরঘাট ও আবদুল্লাহপুর এলাকায় মঙ্গলবার ভোরে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৮ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারসহ ৩ মাদক চোরাচালানকারীকে আটক করেছে র‌্যাব-১। আটককৃতরা হলো- তুহিন (২৫) এবং সবুজ (২৬) ও মো. শাহজাহান (৩৫)।

উদ্ধার করা ইয়াবার মূল্য আনুমানিক ৫০ কোটি টাকার ওপর। চক্রটি ইয়াবাগুলো রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা সিন্ডিকেটের কাছে পৌঁছে দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলো বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার বিকেলে কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক উইং কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, গোপন তথ্যে জানা যায়, একটি সংঘবদ্ধ মাদক চোরাচালান চক্র মিয়ানমার থেকে মধ্যরাতে নদী পথে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে পটুয়াখালী থেকে ঢাকা আসবে। ওই তথ্যেরে ভিত্তিতে ভোর পৌনে ৬টার দিকে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে সপ্তবর্ণা-১ নামক লঞ্চ থেকে দুইজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে ৫লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

মুফতি মাহমুদ জানান, পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের সূত্রে আব্দুল্লাহপুর বাসস্ট্যান্ডে অভিযান চালিয়ে সড়ক পথে বরিশাল থেকে ঢাকায় আসা শাহজাহানকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৩ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, আটককৃতরা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, ৮-১০ জনের সংঘবদ্ধ চক্রটি প্রায় ২ বছর ধরে মাদক চোরাচালান করে আসছে। মিয়ানমার থেকে গভীর সাগরে ইয়াবার চালান আসতো। সেখান থেকে তারা মাদক সংগ্রহ করে পটুয়াখালির উপকুলীয় এলাকায় নিয়ে যেতো। পরে সুবিধামত সময়ে বিভিন্ন রুট ব্যবহার করে ইয়াবা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করতো। এছাড়া চক্রটি মাদক পরিবহনের ক্ষেত্রে একটি ভিন্ন ধরনের কৌশল ব্যবহার করতো। তাদের কাছে আসা মাদককে দুই ভাগে বিভক্ত করে পাচার করতো, যাতে একটি চালান ধরা খেলেও অন্যটি ধরা না পরে। উদ্ধার হওয়া ইয়াবাগুলো ঢাকার একটি বাসায় পৌছে দেয়ার কথা ছিলো।