আবুল কালাম চট্রগ্রাম :

নগরীর পাহাডতলী বাজারে ‘গণপিটুনিতে’ আ, লীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল ‘নিহত হওয়ার’ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় চার আসামিকে আটক করেছেন পু্লিশ।

সোমবার (১ এপ্রিল) ভোররাতের দিকে তাদের আটক করেছেন বলে জানান সি এম পি সহকারী কমিশনার (ডবলমুরিং জোন) আশিকুর রহমান।

আটকৃতরা হল মো. রমজান আলী কারন (৩০), মো. ইকবাল (২১), মো. লালন (৫০) ও মো. শাকিল খান শামীম (১৯)।

আশিকুর রহমান বলেন, ‘মহিউদ্দিন সোহেল হত্যা মামলার চার আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার তাদের আদালতে হাজির করা হবে।

গত ৭ জানুয়ারি পাহাড়তলী বাজারে ‘গণপিটুনির ঘটনায় নিহত হন’ সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল। তখন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পুলিশের পক্ষ থেকে মহিউদ্দিন সোহেলকে ‘সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ’ হিসেবে দাবি করা হয়।

কিন্তু ৮ জানুয়ারি বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে মহিউদ্দিন সোহেলের পরিবার। সংবাদ সম্মেলনে মহিউদ্দিন সোহেলের ছোট ভাই মো. শাকিরুল ইসলাম শিশির দাবি করেন মহিউদ্দিন সোহেলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার পেছনে স্থানীয় কাউন্সিলর সাবের আহমেদ, জাতীয় পার্টির নেতা ওসমান খানসহ কয়েকজন জড়িত বলে দাবি করা হয়।

৮ জানুয়ারি দিবাগত রাতে ডবলমুরিং থানায় মহিউদ্দিন সোহেল ‘নিহত হওয়ার’ ঘটনায় স্থানীয় কাউন্সিলর সাবের আহমেদকে প্রধান আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন মহিউদ্দিন সোহেলের ছোট ভাই মো. শাকিরুল ইসলাম শিশির।
মামলায় ২৭ জনকে এজাহারনামীয় আসামি ও ১০০-১৫০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।