র‌্যাবে পুরস্কৃত হলেন ৫৯ জন, শীর্ষে ব্যাটালিয়ন ৭

সিবিএন ডেস্ক:
২০১৮ সালের বিভিন্ন আভিযানে সাহসিকতা দেখানোয় ৫৯ জন র‌্যাব সদস্যকে বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। ‘সাহসিকতা’ ও ‘সেবা’— এই দুই ক্যাটাগরিতে তাদের পুরস্কৃত করেন র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।
জঙ্গি, মাদক, অস্ত্র ও সার্বিকভাবে— এই চার ক্যাটাগরিতে র‌্যাবের বিভিন্ন ব্যাটালিয়নকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। জঙ্গি দমনে অগ্রণি ভূমিকা পালন করায় জঙ্গি ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছে র‌্যাব-১৩। বাকি তিনটি ক্যাটাগরিতেই প্রথম স্থান অর্জন করেছে চট্টগ্রাম, ফেনী, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবন ও কক্সবাজার এলাকা নিয়ে গঠিত র‌্যাবের ব্যাটালিয়ন ৭।
মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) র‌্যাব সদর দফতরে সংস্থাটির ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পুরস্কার ঘোষণা ও বিজয়ীদের সম্মানিত করা হয়। র‌্যাব মহাপরিচালক তার বক্তব্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার মাধ্যমে একটি স্থিতিশীল সমাজ প্রতিষ্ঠায় র‌্যাবকে একটি আধুনিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, জঙ্গি দমন, সংঘবদ্ধ অপরাধী, অস্ত্রধারী ও মাদকের বিরুদ্ধে সফল অভিযান পরিচালনাসহ একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালন করার র‌্যাবর সব সদস্যকে ধন্যবাদ জানান। এর ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেন।
বিশেষ সম্মাননা (সাহসিকতা) পুরস্কার পাওয়া ৩৪ জনের মধ্যে র‌্যাব-১-এর একজন, র‌্যাব-২-এর একজন, র‌্যাব-৩-এর দুইজন, র‌্যাব-৪-এর একজন, র‌্যাব-৫-এর চারজন, র‌্যাব-৬-এর একজন, র‌্যাব-৭-এর চারজন, র‌্যাব-৮-এর তিনজন, র‌্যাব-১০-এর একজন, র‌্যাব-১১-এর দুইজন, র‌্যাব-১২-এর একজন, র‌্যাব-১৩-এর দুইজন, র‌্যাব-১৪-এর একজন, র‌্যাব-১৫-এর একজন, অপারেশনস উইংয়ের একজন, ইন্টেলিজেন্স উইংয়ের সাতজন এবং লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের একজন সদস্য রয়েছেন।
বিশেষ সম্মাননা (সেবা) পুরস্কার পাওয়া ২৫ জনের মধ্যে র‌্যাব-১-এর একজন, র‌্যাব-৬-এর একজন, র‌্যাব-৯-এর একজন, র‌্যাব-১৩-এর দুজন, র‌্যাব-১৪-এর একজন, অপারেশনস উইংয়ের একজন, ইন্টেলিজেন্স উইংয়ের তিনজন, প্রশাসন ও অর্থ উইংয়ের নয়জন, লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের দুইজন, এয়ার উইংয়ের একজন, কমিউনিকেশন অ্যান্ড এমআইএস উইংয়ের একজন, আরএনডি সেলের একজন এবং র‌্যাব ফোর্সেস ট্রেনিং স্কুলের একজন রয়েছেন।
জঙ্গি সংক্রান্ত আভিযানিক সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে প্রথম স্থান অধিকার করেছে গাইবান্ধা, রংপুর, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় নিয়ে গঠিত র‌্যাব ব্যাটালিয়ন-১৩। দ্বিতীয় স্থানে র‌্যাব-৫ ও তৃতীয় স্থানে র‌্যাব-১১।
পুরস্কার পাওয়ার পর র‌্যাব-১৩ অধিনায়ক অ্যাডিশনাল ডিআইজি মো. মোজাম্মেল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘উত্তরবঙ্গে একসময় জঙ্গিবাদের উত্থান হয়েছিল রাজশাহী ও রংপুরের বিভিন্ন চরাঞ্চলে। ওখানে বেশ কিছু ঘটনাও ঘটে। জাপানি নাগরিক হোশি কুনিওকে হত্যা করা হয়, তারপর একজন বাউলকে হত্যা করা হয়, ধর্মান্তরিত একজন ব্যক্তিকে হত্যা করা হয়। ওই এলাকার জঙ্গি নেটওয়ার্কের সঙ্গে যারা জড়িত ছিল তাদের বড় একটা অংশকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। উত্তরবঙ্গে জঙ্গির প্রধান সমন্বয়ক, সামরিক কমান্ডারসহ ৩৩ জনকে আমরা গত বছরে গ্রেফতার করেছি।’ তিনি বলেন, ‘এদের কাছ থেকে ছোট-বড় ২৮টা অস্ত্র উদ্ধার করেছি এবং বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ ও বিস্ফোরক উদ্ধার করেছি। এটা চলমান প্রক্রিয়া। এই গ্রেফতারের কারণে গত বছরে জঙ্গি কার্যক্রম রংপুর বিভাগে হয়নি। ভবিষ্যতেও আমরা সতর্ক থাকবো। জঙ্গিরা সংগঠিত হওয়ার আগেই যেন আমরা তাদের গ্রেফতার করতে পারি। কাজের স্বীকৃতি ভবিষ্যতে আরও ভালো কাজের অনুপ্রেরণা জোগায়।’
মাদকবিরোধী অভিযানে প্রথম স্থান অর্জন করেছে র‌্যাব-৭, দ্বিতীয় র‌্যাব-৫ ও তৃতীয় স্থানে র‌্যাব-১। অস্ত্র উদ্ধার অভিযানেও প্রথম স্থানে র‌্যাব-৭। দ্বিতীয় স্থানে র‌্যাব-৮ ও তৃতীয় স্থানে র‌্যাব-৫। সার্বিভাবেও প্রথম স্থানে রয়েছে র‌্যাব-৭। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে যথাক্রমে রয়েছে র‌্যাব-৫ ও র‌্যাব-১৩।
র‌্যাব-৭-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মিফতাহ উদ্দিন আহমদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের ব্যাটালিয়ন পুরস্কার পেয়েছে, বিষয়টি আনন্দের। শুরু থেকে আমরা অপরাধ দমনে তৎপর ছিলাম। যে কারণে আমাদের সাফল্য বেশি আসছে। ভবিষ্যতেও এ ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।’

সর্বশেষ সংবাদ

জেলা ছাত্রদলের শোকজ নোটিশের জবাব দিলেন মোঃ সানাউল্লাহ সেলিম

মাঝ সমুদ্রে পড়ে গেলেন প্রিয়াঙ্কা!

১৫ দিনের ভারী বর্ষণে ৫০ হাজার রোহিঙ্গা ক্ষতিগ্রস্ত, পাহাড়ধস ঠেকাতে ‘সেফ প্লাস’ কর্মসূচি

হাসতে হাসতে ২৫ ছাত্রী অজ্ঞান!

প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১৬ টাকায় বিক্রি!

সাম্প্রতিক খুন-ধর্ষণের ঘটনা বিএনপি-জামায়াতের নিখুঁত ষড়যন্ত্র: আইনমন্ত্রী

নাইক্ষ্যংছড়ি হাজী এম এ কালাম ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আব্দুস সাত্তারের স্মরণ সভা

গুজবে কান দেবেন না, কথিত ছেলেধরাকে আইনের হাতে দিন : জেলা পুলিশ

‘আর্ন্তজাতিক মানের ইকো ট্যুরিজমের জন্যই সোনাদিয়ায় বনায়ন করা হচ্ছে’

খরুলিয়ার মাদক সম্রাট নুরাইয়া অবশেষে পুলিশের জালে

ছেলে ধরা সন্দেহে পুলিশে খবর দিন-ওসি জাকির হোসেন ভূঁইয়া

শাহপরীর দ্বীপে ভাঙ্গা সড়ক দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন

কাজী শুভ’র ‘জড়াও মায়ায়’ গানের ভিউ দুই মিলিয়ন

রাঙ্গামাটিতে জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবসের র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ইসলামাবাদ থেকে ভারতীয় লবনসহ ৬ টি ট্রাক জব্দ

দুই মাসের মধ্যে ফিটনেসহীন গাড়ির লাইসেন্স নবায়নের নির্দেশ

জনপ্রশাসন পদক পেলো কক্সবাজার জেলা প্রশাসন

যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

‘গুজব-গণপিটুনি’ আর কতদিন ?

কোরবানি ঈদকে কেন্দ্র করে পশুপালনে শিক্ষিত ও চাকরিজীবীরা