এম, রিদুয়ানুল হক :
জাতি আজ স্মরণ করছে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের ভয়াল কালরাত্রির কথা। ওই রাতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ঢাকা, চট্টগ্রামসহ সারা দেশে যে গণহত্যায় মেতে উঠেছিল, তা শুধু এ দেশের নয়, সমগ্র বিশ্বের ইতিহাসে এক জঘন্য কালো অধ্যায়। এই দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ।

২৫ মার্চ (সোমবার) সকাল ১১ ঘটিকায় চকোবি স্কুল মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধানশিক্ষক ফজলুল কাদের’র সঞ্চালনায় প্রধানশিক্ষক নুরুল আখেরে’র সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার ইখতিয়ার উদ্দিন মো. আরাফাত।

প্রধান অতিথি বলেন- ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ বাঙালীদের উপর চালানো হয়েছিল ভয়াবহ গণহত্যা। সে রাতে তৎকালীন পাকিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানী ঢাকার ফার্মগেটে মিছিলরত বাঙালিদের নির্বিচার হত্যার পর পিলখানা, রাজারবাগ পুলিশ লাইনস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রমনাসহ বিভিন্ন এলাকায় একযোগে হামলা চালিয়ে অসংখ্য বাঙালিকে হত্যা করেছিল তারা। বর্বরতার মর্মন্তুদ সেই কাহিনী সংক্ষেপে বর্ণনা করা সম্ভব নয়। বর্তমনে ২৫ মার্চের সেই গণহত্যার কথা দেশি-বিদেশি বিভিন্ন বই, ডকুমেন্টারি ও মিডিয়ায় প্রচারিত হচ্ছে। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন – আজকের শিক্ষার্থীদেরকে সঠিক ইতিহাস জানতে হবে এবং সে অনুযায়ী এগিয়ে যেতে হবে।

অালোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন – বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মাজাহার হুসায়েন, সহকারী শিক্ষক শাহ আলম। এসময় উপস্থিত ছিলেন – বিদ্যালয়ের শিক্ষক হামিদা জান্নাত, আলহাজ্ব আবুল বশর, শফিউল আলম, মৌলানা আহমদ হোছাইন, মোহাম্মদ সাকের, নুরুল মোস্তফা, রঞ্জিত কুমার দে, নুরুল ইসলাম বাবুল, মিঠু কান্তি দেব মৌলানা নেছারুল হক, আবু রায়হান, খুরশিদা জাহান মুক্তা, নুরুল ইসলাম (শিক্ষক প্রতিনিধি), নুরুল মোস্তফা, নুরুল ইসলাম মণি, সুজিত বড়ুয়া, সৃজন মুহুরী, এম, রিদুয়ানুল হক প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •