ইমাম খাইর, সিবিএন:
তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে রামু উপজেলায় ১৬৪৭ ভোট বেশি পেয়ে বেসরকারী তথ্য মতে এগিয়ে রয়েছেন আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহেল সরওয়ার কাজল। তার প্রাপ্ত ভোট ৩১৩২৭।
একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রিয়াজ উল আলম পেয়েছেন ২৯৬৮০ ভোট। তবে, এ তথ্য রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ের নয়।
রবিরার (২৪ মার্চ) রাত ৮টায় রিপোর্ট লেখাকালে উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে ভোট গণনা চলছে।
সেখানে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মাহফুজুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত আছেন। ভোট গণনা শেষে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন।

রামু উপজেলার মোট ৬১টি ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ হয়। নির্বাচন ঘিরে কোথাও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।
উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১লাখ ৫৮ হাজার ১৮ জন। সেখানে ৮১ হাজার ৪১০ জন পুরুষ এবং ৭৬ হাজার ৬০৮ নারী ভোটার।
নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি, বর্তমান চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সোহেল সরওয়ার কাজল (আনারস) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।
ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন- বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন (টিউবওয়েল), উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও রামু উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি সালাহ উদ্দিন (তালা), ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক হেলাল উদ্দিন (উড়োজাহাজ) এবং আওয়ামীলীগ নেতা আবদুল্লাহ সিকদার (চশমা)।
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন- কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মুসরাত জাহান মুন্নি (প্রজাপতি), রামু উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনোয়ারা ইসলাম নেভি (ফুটবল) এবং উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আফসানা জেসমিন পপি (কলসি)।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •