প্রেস বিজ্ঞপ্তি :  পেকুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার পক্ষে শুক্রবার সারাদিন প্রচারণা চালিয়েছেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী। শুক্রবার সকালে পেকুয়া চৌমুহনী, পেকুয়া বাজার ও মগনামা ইউনিয়নেরবিভিন্ন এলাকায় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও পেকুয়া  উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেমের পক্ষে লিফলেট বিলি ও প্রচারণা  চালিয়েছেন তিনি। সাঈদীর সঙ্গে নৌকার প্রচারণায় যোগ দেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাংসদ জাফর আলমের ছেলে তানভির আহমেদ সিদ্দিকী তুহিন।
সকাল ১১টায় চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী পেকুয়া চৌমুহনীতে পথসভায় বক্তব্য দেন। এসময় ফজলুল করিম সাঈদী বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায়। পেকুয়ায় ব্যাপক উন্নয়ন করতে কাশেমের মতো জনবান্ধব নেতার দরকার। ২৪ তারিখ কাশেম ভাইকে নৌকা মার্কায় একটি করে ভোট দিয়ে পেকুয়ার উন্নয়নে আপনাদের শপথ নিতে হবে। সাঈদীর বক্তব্যের পর পেকুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আবুল কাশেম বক্তব্য দেন। আবুল কাশেম বলেন, পেকুয়া চৌমুহনীর একটি সন্ত্রাসী পরিবারের হাতে
মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছে। তাঁদের জবর-দখল, সন্ত্রাসী কর্মকা- ও চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে পেকুয়ার সাধারণ জনগণ। আগামী ২৪ তারিখ
ব্যালটের মাধ্যমে এসব অপরাধ কর্মকা-ের জবাব দেওয়ার সময় এসেছে। আমি আপনাদের কাছে নৌকা প্রতিকে একটি করে ভোট চাই।
পরে ফজলুল করিম সাঈদী মগনামার বিভিন্ন এলাকায় নৌকার পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে কুশল বিনিময় করেন। এসময় সাঈদী বলেন, ২৪ তারিখ নৌকা প্রতিককে বিজয়ী করতে হবে। নৌকা প্রতিক বিজয়ী হলে শেখ হাসিনা জয়ী হবেন। পেকুয়া থেকে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজি উৎখাত করতে কাশেমকে উপজেলা পরিষদে পাঠান। তাঁর সঙ্গে এমপি জাফর রয়েছেন। মিলেমিশে উন্নয়ন কর্মকা- করে আবুল কাশেম পেকুয়াকে একটি মডেল উপজেলায় রূপান্তরিত করতে পারবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •