শাহীন মাহমুদ রাসেল

কক্সবাজার সদর উপজেলার খরুলিয়া বাজারে একই রাতে তালা ভেঙ্গে একটি ফার্নিচারের দোকানসহ পাশাপাশি দুইটি বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। চোরেরা স্বর্ণালংকারসহ পাঁচ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনার পর থেকে বাজারের ব্যবসায়ীসহ সাধারন মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

বুধবার দিবাগত রাতে খরুলিয়া বাজারের পূর্ব পাশে জহির উদ্দিনের ফার্নিচারের দোকান ও পাশাপাশি মুন্সি পাড়া এলাকার ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ ও একই এলাকার মুন্সি আনোয়ারের বাড়িতে এ চুরির ঘটনা ঘটে।

বাজারের ফার্নিচার ব্যবসায়ী জহির জানান, বুধবার গভীর রাতে দোকানের তালা ভেঙ্গে চোরেরা দোকানে ঢুকে। এসময় ফার্নিচার দোকান থেকে নগদ তিন হাজার টাক ও রেডিমেড ফার্নিচারসহ অন্তত লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়। তিনি আরোও বলেন, এই পর্যন্ত আমার দোকানে দুইবার চুরি হল। গত একবছরে খরুলিয়া বাজারে কয়েকটি চুরির সংগঠিত হয়েছে। এরপর এক এক করে আ.লীগ নেতা আব্দুল্লাহ ও মুন্সি আনোয়ারের বাড়ির দরজা কৌশলে খুলে ভেতরে ঢোকে। তারা আলমারি ভেঙে স্বর্ণালংকার, মোবাইল, টাকাসহ প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মালামাল চুরি করে। এ সময় বাড়ির লোকজন টের পেয়ে চিৎকার করলে চোরেরা পালিয়ে যায়।

খরুলিয়া বাজারের ব্যবসায়ীরা বলেন, আমরা ব্যবসায়ীরা আতঙ্কের মধ্যে আছি। ব্যবসায়ী আজিম খান বলেন, খরুলিয়া বাজারে চুরি বেড়েই চলেছে। এসব চুরি বন্ধ করতে শীঘ্রই এই বাজারে প্রশাসনের নজর রাখা জরুরী।

গত কয়েক বছরে ঝিলংজা ইউনিয়নের খরুলিয়া বাজার ও আশেপাশের এলাকায় ৭টি দোকান ও ১০টি বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। সারারাত পাহারাদার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল থাকার পরও রাস্তার পাশের এসব দোকান ও বাড়িতে ঘন ঘন চুরির ঘটনা ঘটায় সাধারণ মানুষ এবং ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •