শাহেদ মিজান, সিবিএন:
চোরাইপথে মালয়েশিয়া গমন এবং ইয়াবার চালান আনতে গিয়ে মায়ানমারে আটক হয়েছিলেন চার বাংলাদেশী। সেই পরিণতির জন্য করতে হয়েছে সাড়ে নয় বছর কারাভোগ। অবশেষে দেশে ফিরতে পেরেছেন তারা। বুধবার (২০ মার্চ) দু’দেশের বৈঠকের মাধ্যমে তাদেরকে দেশে ফেরত এনেছে বিজিবি।

ফেরত আসা চার ব্যক্তি হলেন- টেকনাফ সদর ইউপির নাজির পাড়ার মৃত হোসেন আহমদের পুত্র মোঃ জসিম (৪৪), আব্দুল গফুরের পুত্র মোঃ ইলিয়াছ (২৯), মৌলভী পাড়ার সুলতান আহমদের পুত্র সাব্বির আহাম্মদ (৩৬) ও আবুল কালামের পুত্র আজগর আলী (৩৯)।

বিজিবি সূত্র জানায়, দীর্ঘদিনের প্রক্রিয়ার পর আটক চারজননে ফেরতে দিতে সম্মত হয় মায়ানমার। সেই মোতাবেক দুই বুধবার সকাল ১১টায় মিয়ানমারের অভ্যন্তরে মন্ডু ১নং এন্ট্রি/এক্সিট পয়েন্টে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দারের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ১১সদস্য প্রতিনিধি দল এবং মন্ডু ডিস্ট্রিক পুলিশের ডেপুটি ডাইরেক্টর থিন লিন মিয়ানমার ৮সদস্য প্রতিনিধি দলের বৈঠক শেষে। বৈঠক শেষে চার বাংলাদেশীকে বিজিবি হাতে তুলে দেন মিয়ানমার প্রতিনিধিদল।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার বলেন, নাজির পাড়ার দু’জন মালয়েশিয়া যেতে গিয়ে মিয়ানমার আদালতে ২১ বছর এবং মৌলভী পাড়ার দু’জন ইয়াবা আনতে গিয়ে ২৫ বছর সাজা প্রাপ্ত হন। সাড়ে ৯ বছর সাজা ভোগের পর অবশিষ্ট সাজা মিয়ানমার সরকার মওকুপ করে দেন। বিজিবির প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের ফেরত আনা হয়েছে। তাদেরকে পরিবারের নিকট হস্তান্তরের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •