এম বশির উল্লাহ, মহেশখালী:
মহেশখালীতে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ৫ প্রার্থীকে জরিমানা করেছে প্রশাসন। এ সময় মোবাইলকোর্টের মাধ্যমে তাদেরকে নগদ অর্থদণ্ড করা হয়।

অর্থদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন -চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী মোহাম্মদ হোছাইন ইব্রাহীম (নৌকা) ৮ হাজার টাকা, সতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ শরীফ বাদশা (আনারস) ১৫ হাজার টাকা, সাজেদুল করিম (দোয়াত-কলম) ৮ হাজার টাকা, নারী ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোয়ারা কাজল (কলসি) ৮ হাজার টাকা ও অপর এক ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) দিবাগত রাত ৮টার পর থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসান মারুফ রাহাত এর নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।

আদালত সূত্র জানায়, প্রার্থীদের কেউ আচরণবিধি লঙ্ঘন করে বিপুল গাড়ি বহর নিয়ে শোডাউন করে, কেউ আবার গভীর রাতে গাড়িতে মাইক টাঙিয়ে নির্বাচনি প্রচারণা চালাচ্ছিল।

মহেশখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসান মারুফ রাহাত জানান, আগামী ২৪ মার্চ তৃতীয় ধাপে মহেশখালীতে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষ্যে নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর পর থেকে মহেশখালীতে ভ্রাম্যমান আদালত সক্রিয় রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রাতে আদালতের কাছে তথ্য আসে বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে প্রার্থীরা প্রচারণা চালাচ্ছেন। খবর পেয়ে দ্রুত অভিযান চালানো হয়। মহেশখালী পৌরসভা, বড় মহেশখালী, হোয়ানক, মাতারবাড়ি ও আশপাশের ইউনিয়নে ৩ চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ৫ প্রার্থীকে অর্থদণ্ড দেয় আদালত। একই সাথে তাদেরকে বিধি লঙ্গন না করার জন্য সতর্ক করা হয়।

এ প্রসঙ্গে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জামিরুল ইসলাম জানান, নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্গন করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আজ বুধবার প্রার্থীদের নিয়ে এ সংক্রান্ত একটি সভা আহ্বান করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •