পালংকির আর্তনাদ!

– শাহাদাত হোসেন রিপন
আজন্ম ভালবাসা আমার কক্সবাজার, সকাল দুপুর নিশিত আমার কক্সবাজার, জীবন আমার – যৌবন আমার ললাঠের উপঢৌকন আমার কক্সবাজার,
প্রিয় জন্মভূমি আমার,পর্যটন রানী কক্সবাজার।
দিন দিন কক্সবাজার এর আনাচে কানাচে বিভিন্ন জায়গায় এখন শুধু চোখে পড়ে বিভিন্ন এনজিও সংস্থা আর সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য ক্রয়কৃত এবং বরাদ্দকৃত নিজস্ব সম্পত্তির সাইনবোর্ড।
অনেক জমিতে গড়ে উঠেছে বড় বড় আধুনিক অট্টালিকা। যে অট্টালিকা কক্সবাজার এর স্থানীয় কোন জনসাধারণের জন্য বরাদ্দকৃত নয়,এমন কী স্থানীয় লোকজনের প্রবেশাধিকারও অনেক দুঃসাধ্য ব্যপার।এমনকি পথ চলার সময়ও অতি মাত্রায় সচেতন থাকতে হয়,যাতে আমাদের মত অর্বাচীনদের ভুলের কারণে ধবল বর্ণের সাহেব সুবোদের চলাচলে
ব্যাঘাত না ঘটে। উপরন্তু এইসব ধবল সাহেবদের সেবার নিমিত্তে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে আগত দেশী সাহেবদের চোটপাটে এই শহরের স্থায়ী বাসিন্দাদের প্রাণ মান ওষ্ঠাগত।দেশে একটি কথা খুবই চর্চিত যে এই সব ‘সেবা ধর্মী সংস্থার ‘ শুভ আগমনের ফলে আমাদের শহরের স্থায়ী বাসিন্দারা নাকি বাড়ী ভাড়া,বাজার সদাই ,খাবার দাবার, যাতায়াত সহ এতদ বাবদ নাকি বেশ জম্পেশ অর্থ কড়ি পাচ্ছেন। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে এই সকল সুবিধাদি হতে যারা লাভবান হচ্ছেন, শতাংশের ইিসেবে এই শহরের আদি বাসিন্দাদের সংখ্যাটা অতিব নগন্য। উপরন্তু আমাদের অঞ্চলের যথাযথ যোগ্যতা সম্পন্ন ছেলেমেয়েদের ঐসব ‘সেবা দাতাদের ‘ প্রতিষ্ঠানে একটি চুক্তি ভিত্তিক চাকুরির জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করতে হয়, আখেরে তাও কিন্তু জুটে না,আমরা এত্তই অপাংক্তেয় !?
রামু হতে শুরু করে কক্সবাজার শহর সদর হিমছড়ি ইনানী উখিয়া টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ পর্যন্ত, সড়কের দুপার্শ্বের ত্রি-আবাদী জমি গুলো এমনকি গলি ঘুপচি পেরিয়ে লোকালয়ের বাস্তুভিটা অব্দি, যেই রকেট গতিতে নানান রঙ্গিন প্রলোভনের ফাঁদে, হাতে হাতে বেহাত হচ্ছে,
তাতে করে শিঘ্রই এই অঞ্চলের হাত গুনতি অবশিষ্ট আদিবাসীদের হিজরতে নামতে হবে।
যদিও সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের সুস্পষ্ট নিষেধাজ্ঞা আছে কৃষিজ জমির ব্যাপারে।তবুও কেউ তোয়াক্কা করে না।
এসব সয়ে নিরবে ধুকছে আমার পালংকি।
এ যেন নিজ ভূমেই অনাহুত আগুন্তক হয়ে যাচ্ছি আমরা!
আমার/আমাদের করণীয় কী ? আপনি/আপনারা কী বলবেন?

শাহাদাত হোসেন রিপন

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজারের সন্তান ব্যারিস্টার নওরোজ চৌধুরী ডেপুটি এটর্নি জেনারেল হলেন

চকরিয়ায় বৃদ্ধ মুক্তিযোদ্ধার উপর সন্ত্রাসী হামলা

জলদাশ পাড়ায় শ্মশান নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা সমাধানে এগিয়ে গেলেন এমপি কমল

বন্যায় দূর্গত মানুষের পাশে নেই বিএনপি নেতা কর্মীরা- রেজাউল করিম

চীনের মাটিতে শিক্ষাজীবন ও নতুন অভিজ্ঞতা

খুটাখালী থেকে অপহৃত জসিম ফিরেছে, আনসার কমান্ডার গিয়াসের খোঁজ নেই

‘পর্যটন শহর কক্সবাজারকে আধুনিকীকরণ’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা

চকরিয়ায় স্কুলছাত্রী ধর্ষনের ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা

পেকুয়ায় স্কুলছাত্র নিখোঁজ

ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচনে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করুন : জেলা আওয়ামী লীগ

মানব কল্যাণ ও সাংবাদিকতা!

পরিবারকল্যান কর্মীদের পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে : এডিএম শাজাহান আলি

কক্সবাজার জেলা ছাত্রদল এর ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি

ফাঁসিয়াখালী, বড়ঘোপ ও হ্নীলায় বৃহস্পতিবার সাধারণ ছুটি ঘোষণা

যশোরের শার্শায় প্রসূতি নারীর তিন পুত্র সন্তানের জন্ম

একাই দুই ছিনতাইকারী ধরে পুলিশে দিলেন সাংবাদিক

চকরিয়ায় অপহরণের ৭ দিন পর স্কুল ছাত্র উদ্ধার

ওলামা লীগ বিলুপ্তির পথে?

দেশ ছেড়ে কোথাও যাবেন না, জানালেন প্রিয়া সাহা