বার্তা পরিবেশক:

আগামী ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন তরুন রাজনীতিবিদ ও সমাজ সেবক কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল। তিনি জেলা আওয়ামীলীগের প্রয়াত শ্রম বিষয়ক সম্পাদক কাজী তোফায়েল আহম্মেদের সুযোগ্য কনিষ্ট সন্তান। আবার তার এক ভাই কাজী মোস্তাক আহমেদ শামীম জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আরেক ভাই কাজী মোরশেদ আহমেদ বাবু পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। এদিকে আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান, অন্যদিকে ছাত্র ও যুব সমাজের প্রিয় মুখ কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন এ খববে কক্সবাজার পৌরসভা থেকে শুরু করে সদর উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ থেকে শুরু করে আওয়ামীলীগের সহযোগী অংগসংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে যেমনি ভাবে উৎসাহ দেখা দিয়েছে ঠিক তেমনি ভাবে সাধারণ জনগণের মাঝে কাজী রাসেলকে দেখা দিয়েছে উৎসবের আমেজ। আর তারই প্রতিফলন ঘটেছে গতকাল (মঙ্গলবার) বিকেলে কাজী রাসেলের সমর্থনে বের হওয়া বিশাল শো-ডাউনে। যে শো-ডাউনে আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা থেকে শুরু করে সকল বয়সের মানুষ স্বর্তস্ফূত ভাবে অংশ গ্রহণ করে জানিয়ে দিয়েছে সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে সৎ, মেধাবী ও পরিশ্রমী তরুন সমাজ সেবক কাজী রাসেলকে দেখতে চাই জনগণ। কাজী রাসেলকে সদর উপজেলা পরিষদে ভাইস চেয়ারম্যান চেয়ে হাজার হাজার সাধারণ মানুষ শহরজুড়ে বিশাল মিছিল করেছে। মিছিলটি কলাতলীর লাইটহাউজ এলাকা থেকে বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক ও অলি-গলি প্রদক্ষিণ করে। এতে ভাইস চেয়ারম্যানের দাবী সম্বলিত বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন দেখা যায়। পরে মিছিল সহকারে সদ্য নির্বাচিত মহিলা সংসদ সদস্য ও জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী কানিজ ফাতেমা মোস্তাকের সংবর্ধনা অনুষ্টানে যোগ দেন কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল। চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা কামাল বলেন-কিছুদিন আগে তিনি তার ফেসবুকে মসজিদের উন্নয়নের জন্য একটি স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসটি দেখে কাজী রাসেল তার নাম্বার দিয়ে তার সাথে যোগাযোগ করতে বলেন এবং পরবর্তীতে কিছু অর্থ সহায়তা করেন। তবে কাজী রাসেল এই সহযোগিতার জন্য নাম প্রকাশ না করতে কামাল অনুরোধ করেন। শো-ডাউনে অংশ নেয়া খুরুশকুলের রফিকুল ইসলাম জানান-কাজী রাসেল অনেক আগে থেকেই শুধু কক্সবাজার পৌরসভা কিংবা খুরুশকুল নয়, সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে গিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে মিশে তাদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। তাই জনপ্রিয়তায় সবচেয়ে এগিয়ে তিনি। আর সেই সমর্থন জানানোর জন্যই আজকের এই মিছিলে এসেছি। কলাতলী এলাকার আব্দুল গফুর বলেন, ‘কাজী রাসেল সাধারণ মানুষের যেকোন বিপদে সাড়া দিতে এক মিনিটও দেরি করেন না। সবাইকে সহযোগিতা করেন। তাকে আমরা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই। শহরের ফাতের ঘোনার আয়েশা বেগম নামের এক মহিলা জানান-তাদের যখন উচ্ছেদ করা হয়েছিল তখন বিবেকের টানে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন কাজী রাসেল। দীর্ঘ ২২ দিন ধরে তাদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন। আর তাই মঙ্গলবার কাজী রাসেলের মিছিল হচ্ছে যেন স্বইচ্ছায় এলাকার আরো মহিলাদের নিয়ে ছুটে আসেন তিনি। মিছিলে অংশ নেয়া বাংলাবাজার এলাকার ভোটার বৃদ্ধ ছৈয়দ আলম জানান-কাজী রাসেল অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং জনবান্ধব একজন মানুষ। তার মত একজন জনপ্রতিনিধি পাওয়া নিঃসন্দেহে সৌভাগ্যের। তাই আমরা তাকে এবারের নির্বাচনে সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়। এক প্রতিক্রিয়ায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল বলেন- আমি একজন আওয়ামী পরিবারের সন্তান। আমি দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছি। সদর উপজেলাবাসীর সুখে-দুঃখে পাশে ছিলাম এবং আছি। যেখানে অন্যায় দেখেছি প্রতিবাদ করেছি। তরুনদের সাথে নিয়ে আগামীতে কক্সবাজার সদর উপজেলাকে দুর্নীতি ও চাঁদাবাজ মুক্ত করে সুন্দর একটি উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবো ইনশাআল্লাহ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •