cbn

সিবিএন ডেস্ক:
ঢাকা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে গাজী শাহ আলম সভাপতি ও আসাদুজ্জামান খান (রচি) সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের ব্যানারে ‘সাদা প্যানেল’ সংখ্যাগরিষ্ঠ জয় পেয়েছে। সাদা প্যানেলে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ জয় পেয়েছে ১৮টি পদ এবং বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেলের ব্যানারে ‘নীল প্যানেল’ সিনিয়র সহ-সভাপতিসহ পেয়েছে ৯ পদ।

সাদা প্যানেলে যারা জয়ীরা হলেন- সভাপতি গাজী মো. শাহ আলম, সহ-সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন দুলাল, সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান খান (রচি), ট্রেজারার আব্দুল জলিল আফ্রাদ (কবির), সিনিয়র সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ওমর ফারুক (আসিফ), দফতর সম্পাদক মো. জাহিদুল ইসলাম (কাদির), ক্রীড়া সম্পাদক মো. উজ্জ্বল মিয়া, সমাজকল্যাণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির টগর। সদস্য পদে- আয়শা বিনতে আলী, হায়াত আল মাহমুদ (ঝিকূ), কাউসার হাসান, মো. ইব্রাহিম হোসেন, মো. জুয়েল সিকদার, মো. মাসুম মিয়া, সোহরাব হোসেন, তানভীর আহম্মেদ (সজীব), তুসার ঘোস।

নীল প্যানেল সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম দেওয়ান, গ্রন্থাগার সম্পাদক জিয়াউল হক জিয়া, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোর্শেদা খাতুন শিল্পী, সদস্য পদে- কাজী রওশনা দিল আফরোজ, মো. ইব্রাহিম (খলিল), মো. মেহেদী হাসান জুয়েল, মিসেস. ফারহানা আক্তার লুবনা, শাহীন সুলতানা (খুকি) ও ইকবাল মাহমুদ সরকার।

গত ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি (বুধবার ও বৃহস্পতিবার) একই সময়ে ভোটগ্রহণের নির্দিষ্ট সময় ছিল। ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রথমদিন ৪ হাজার ৬৪২ জন ভোট দেন। বৃহস্পতিবার (০৭ র্মাচ) ৪ হাজার ৭২২টি। সর্বমোট ৯ হাজার ৩৬৪ জন ভোট দেন।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করায় তা পরিবর্তন করে। ৭ র্মাচ নতুন এ তারিখ নির্ধারণ করেন। শুকবার (০৮ র্মাচ) ভোট গণনা হয়।

নির্বাচনে আওয়ামী সমর্থিত আইনজীবীদের সমন্বয়ে গঠিত ‘সাদা প্যানেল’ ছাড়াও বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত আইনজীবীরা ‘নীল প্যানেলে’ প্রার্থী দিয়েছেন। সব মিলিয়ে এবার সমিতির ২৭টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫৭ জন প্রার্থী।

গত ৩১ জানুয়ারি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। সমিতির নির্বাচনের জন্য গঠিত কমিশনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট মোখলেসুর রহমান বাদল জানান, নির্বাচন সম্পন্ন করতে ২০ আইনজীবীকে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এবার সমিতির বৈধ ভোটার সংখ্যা ১৭ হাজার ৮৯৭ জন। এর মধ্যে নতুন ভোটার রয়েছেন প্রায় আড়াই হাজারের মতো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •