প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, কক্সবাজার সদর ও রামুতে যে সমস্ত শিক্ষার্থী উচ্চ শিক্ষা অর্জনে বিদেশ যেতে আগ্রহী তাদের যাতায়তসহ সকল প্রকার সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করা হবে। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে আমরা অনেক শিক্ষার্থীকে উচ্চ শিক্ষা অর্জনে বিদেশ যেতে সহযোগিতা করেছি। অমাদের এ কর্মসূচী সকল শিক্ষার্থীর জন্য উন্মোক্ত। বিশেষ করে গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীরা এ কর্মসূচীতে অগ্রাধিকার পাচ্ছেন। গতকাল রবিবার (৩ মার্চ) কক্সবাজার সিটি কলেজের সম্বর্ধনা, বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বলেন, শিক্ষা অর্জনের কোন শেষ নেই, শিক্ষা অর্জনকালে কোন প্রকার ভুল করা যাবেনা। শিক্ষা অর্জনে সকলকে যে এক নম্বর হতে হবে এমন নয়। তবে মনোযোগ সহকারে শিক্ষা অর্জন করে ভাল ও দেশপ্রেমিক মানুষ হতে হবে সকল শিক্ষার্থীকে। তিনি বলেন, এইচএসসি বা ডিগ্রী পাশ করে চাকরীর স্বপ্ন নয়, উচ্চ শিক্ষা অর্জনের স্বপ্ন দেখতে হবে। উচ্চ শিক্ষা অর্জনকারী শিক্ষার্থীর কড়া নাড়বে চাকরি।

এমপি কমল বলেন, বাংলাদেশ এমনি এমনি আসে নাই। আমাদের পূর্বসুরীরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিলো বলেই এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। এদেশে এখনও যারা স্বাধীনতার বিপক্ষে কথা বলে তারা বায়ান্নের ভাষা আন্দোলনেরও বিরোধীতা করেছিল। তাদের ব্যাপারে সকল দেশপ্রেমিককে সতর্ক থাকতে হবে।

বঙ্গবন্ধু কণ্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এই এগিয়ে যাওয়ার মিছিলে কক্সবাজারও থেমে নেই। গত চল্লিশ বছরে কক্সবাজারে যা হয়নি, শেখ হাসিনার সময়কালে আমরা আজ তাহা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কক্সবাজার সিটি কলেজে চারতলা বিশিষ্ট নতুন ভবন, একটি বাস গাড়ি, যাতায়তের রাস্তার উন্নয়নসহ পর্যায়ক্রমে সকল উন্নয়ন কর্ম বাস্তবায়ন করা হবে বলে এমপি কমল ঘোষনা দেন।

বক্তব্যের শুরুতেই সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি কক্সবাজার সিটি কলেজের অনিন্দ্য সুন্দর আয়োজনের প্রশংসা করে কলেজ অধ্যক্ষসহ সকল শিক্ষক, কলেজের শিক্ষার্থীর প্রশংসা করে সিটি কলেজকে কক্সবাজারের শ্রেষ্ট মডেল কলেজ হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

কক্সবাজার সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ক্যথিংঅং এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিটি কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি, সাবেক সাংসদ অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন, উপাধ্যক্ষ আবু মোঃ জাফর সাদেক, দাতা সদস্য এডঃ ফরিদুল আলম। অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী, ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •