প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক ড. আশরাফুল ইসলাম সজীব বলেছেন, কক্সবাজারের শতকরা ৫০ শতাংশ মানুষ লবন চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। তাদের জীবনের একমাত্র সহায় সম্বল লবন চাষ। কিন্ত, এক শ্রেণির আমদানিকারক বরাবরের মতো চাষীদের পেঠে লাথি মেরে বিদেশ থেকে লবন আমদানি করে আসছে। এসব অসাধু আমদানিকারকদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে ও লবন আমদানি বন্ধে জাতীয় সংসদে বিল পাশের জোর দাবী জানাচ্ছি।

এছাড়াও জেলা ও বিভাগীয় কমিশনারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান, ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনসহ জাতীয় শহীদ মিনারে আমরণ অনশন পালনের হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন বক্তারা।

রোববার (৩ মার্চ) বিকালে চট্টগ্রামস্থ উপকূলীয় সচেতন নাগরিক ঐক্য পরিষদের ব্যানারে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

“আমরা কক্সবাজারের নুন খাই, তাই কক্সবাজারের গুণ গাই”, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উক্তিটি স্মরণ করিয়ে দিয়ে ড. সাজিব বলেন, কক্সবাজারের মাটি ও মানুষের সাথে, শিল্পের সাথে আপনার সম্পর্ক। এ শিল্পকে বাঁচাতে একমাত্র আপনিই পারবেন। তাই, লবন চাষ বন্ধের ষড়যন্ত্র রুখে দিতে আপনাকে উদ্যোগ নিতে হবে।

উপকূলীয় সচেতন নাগরিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক এম কায়ছার উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক আবদু রশিদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি সুজন, পরিবর্তন চট্টগ্রাম এর সাধারণ সম্পাদক এহসান আল কুতুবী, চপই’র ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি নাছির উদ্দিন কুতুবী, ছাত্রনেতা ওয়াজেদ হুসাইন, শরিফ উদ্দিন, সাদ্দাম হোসাইন ও অ্যাডভোকেট জামশেদ।

উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক এহছানুল হক, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মুজাম্মেল, লবন সমিতির সদস্য আবু আহমদ, লবন ব্যাবসায়ী নেতা আনছুর আলী, ছাত্রনেতা বোরহান উদ্দিন, খাইরুল ইসলাম, রিয়াজুল ইসলাম, সাইফুদ্দিন মুন্না, কামাল হোসাইন, শেখ আজম, রিদুয়ানুল ইসলাম, রাজিবুর রহমান, আক্কাস বাপ্পি প্রমুখ।

ছবির ক্যাপশন: উপকূলীয় সচেতন নাগরিক ঐক্য পরিষদের মানববন্ধনে বক্তব্য রাখছেন ড. আশরাফুল ইসলাম সজীব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •