cbn  

পেকুয়া সংবাদদাতা :

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পেকুয়া উপজেলা থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন পেকুয়া উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম।

মঙ্গলবার (২৬ফেব্রুয়ারি) বিকালে দুই সহ¯্রাধিক দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয় জনগণ নিয়ে উৎসব মুখর পরিবেশে তিনি এ মনোনয়ন ফরম জমা দেন।

এদিকে জাহাঙ্গীর আলম নৌকার মনোনয়ন না পাওয়ার পর থেকে তার কর্মী সমর্থকরা কলা গাছ রোপন করে প্রতিবাদ শুরু করে। উপজেলার পেকুয়া চৌমহুনী, পেকুয়া বাজার, উজানটিয়ার সোনালী বাজার, মগনামা কাজি মার্কেট, টইটংয়ের ধনিয়াকাটা, হাজি বাজার, টইটং বাজার, শিলখালীর জনতা বাজার, স্কুল ষ্টেশন, বারবাকিয়া বাজার, রাজাখালীর সুন্দরী পাড়াসহ আরো বেশ কয়েকটি স্থানে তার কর্মী সমর্থকরা কলা গাছ রোপন করে তাকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার জন্য দাবী জানিয়ে আসছিল।

মঙ্গলবার দুপুর থেকে এসব নেতাকর্মীরা শোভাযাত্রা মিছিল নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমের বাড়ীর সামনে উপস্থিত হন। পরে নেতাকর্মী ও স্থানীয় জনতা কলা গাছ হাতে নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমের সাথে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দেন। পরে তাঁর কর্মী সমর্থকরা কলা গাছ স্লোগান দিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম ও অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী ও ককসবাজার জেলা আ.লীগ নেতা গিয়াস উদ্দিনকে সাথে নিয়ে উপজেলার প্রধান সড়ক সমূহ প্রদক্ষিণ করে।

মিছিল পরবর্তী পেকুয়া চৌমুহনী চত্ত্বরে সংক্ষিপ্ত সভায় যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয় জনগণ কলা গাছ নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়ে আমাকে সমর্থন দিয়েছে। যার কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আমি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।

এসময় স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম ছাড়াও অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আ’লীগের প্রভাবশালী সদস্য এসএম গিয়াস উদ্দিন, উপজেলা আ’লীগের সহসভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান এম শহিদুল্লাহ বিএ, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল শামা শামীম, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী মফিজুর রহমান, মগনামা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা মো: ইউনুছ চৌধুরী, আ’লীগ নেতা সাইফুউদ্দিন খালেদ, উপজেলা যুবলীগ সহসভাপতি শফিউল আলম, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সম্পাদক ওসমাণ সরওয়ার বাপ্পিসহ পেকুয়া উপজেলা আ’লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী, ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •